হেলমেট পরে ছাত্রীদের শরীরে হাত দিয়ে পালিয়ে যেতো স্কুল শিক্ষক!

হেলমেট পরে ছাত্রীদের শরীরে হাত দিয়ে পালিয়ে যেতো স্কুল শিক্ষক!

হেলমেট পরে ছাত্রীদের শরীরে হাত দিয়ে পালিয়ে যেতো স্কুল শিক্ষক!
হেলমেট পরে ছাত্রীদের শরীরে হাত দিয়ে পালিয়ে যেতো স্কুল শিক্ষক!

নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইলে গত ৪ মাস ধরে ছাত্রীদের উত্যক্তকারী হেলমেট ধারী সজিব অবশেষে পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। তার মোটর সাইকেল নং-নড়াইল-হ-১১৮০৬৮। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) গভীর রাতে আলাদাতপুর পাসপোর্ট অফিসের গলি থেকে মোটর সাইকেলসহ সদর থানা পুলিশ তাকে আটক করে।

সজীব নড়াইল সদর উপজেলার বেতেঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এবং শহরের ভাদুলীডাঙ্গার শেখ মোহাম্মদ হুসাইনের ছেলে।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, সজীব মোটর সাইকেলে চড়ে হেলমেট পরে নড়াইল শহরের বিভিন্ন এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রীদের উত্যক্তকরণ ও কুপ্রস্তাবসহ স্বর্ণালংকার ছিনতাই করে বেড়াত। এসব ঘটনায় ভূক্তভোগীরা থানায় সাধারণ ডায়রিও (জিডি) করেন।

কিন্তু মাথায় হেলমেট পরে মুখ ঢেকে রাখায় তাকে সনাক্ত করতে বেশ বেগ পেতে হয়। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে বসানো সিসি ক্যামেরায় তাকে ধারণ করা গেলেও মুখ ঢেকে রাখায় সজীবকে সনাক্ত করা যাচ্ছিল না। তার হেলমেট পরা ছবি দিয়ে পোস্টার ছাপিয়ে শহরে বিভিন্ন এলাকায় বিতরণ করেও তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না।

অবশেষে বিভিন্ন ধরণের কলাকৌশল প্রয়োগ বৃহস্পতিবার (২০ জুন) রাতে তাদের বাড়ি থেকে সজীবকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। উত্যক্তকরণসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ডে ব্যবহৃত তার মোটরসাইকেলটিও জব্দ করা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার ছাত্রীদের অভিযোগ, স্কুলে যাওয়া আসার পথে কিম্বা প্রাইভেট পড়তে যাবার রাস্তায় এই সজিব তাদের আক্রমন করতো। নির্জন স্থানে লম্পট শিক্ষক সজীব হেলমেট পরে মোটর সাইকেল চালিয়ে পিছন দিক থেকে এসে ছাত্রীদের গায়ে হাত দিয়ে আবার পালিয়ে যেত। অধিক সংখ্যক ছাত্রীদের সাথে এই ঘটনা ঘটলেও অনেকে পরিবারের ভয়ে অভিযোগ করতে পারেনি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে শহরের অন্ততঃ ২৫ টি মেয়ের অভিযোগ, পেছন থেকে এসে ওড়নায় টান দেয়া,এবং শরীর স্পর্শ করে চলে যেতো ঐ বখাটে।পরিবারের কাছে বলতে লজ্জ্বা হতো তাই বলা হয়নি। এ ব্যাপারে ভয়ে আমরা গত ৪ মাস যাবত নির্জন রাস্তা দিয়ে প্রাইভেট পড়তে যেতে সাহস পেতাম না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নড়াইল সদর থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন পিপিএমসহ পুলিশ কর্মকর্তারা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com