সংবাদ শিরোনাম :
স্বার্থ হাসিলের হাতিয়ার না হতে শিক্ষার্থীদের প্রতি শিক্ষামন্ত্রীর আহ্বান

স্বার্থ হাসিলের হাতিয়ার না হতে শিক্ষার্থীদের প্রতি শিক্ষামন্ত্রীর আহ্বান

লোকালয় ডেস্ক : কারও স্বার্থ হাসিলের হাতিয়ার না হতে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আটক শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রকৃত দোষী কেউ থাকলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা হবে এবং তাদের ক্ষমা করে ছেড়ে দেয়া শিক্ষামন্ত্রণালয়ের এখতিয়ারে নেই বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে ক্লাস-পরীক্ষা চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

 

বুধবার (৮ আগস্ট) রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সঙ্গে জরুরি মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

 

মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথির বক্তব্যের শুরুতেই নুরুল ইসলাম নাহিদ বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনাকে ‘হত্যাকাণ্ড’ হিসেবে দেখেন মন্তব্য করে বলেন, এরকম হত্যাকাণ্ড বন্ধে সরকার নিরাপদ সড়কের দাবিতে করা শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে আসছিলো। কিন্তু গত ৪ তারিখ থেকে গুজব ছড়িয়ে আন্দোলনকে বিপথে নেয়ার চেষ্টা হয়েছে।

 

তিনি আরও বলেন, একটি মহল গুজব ছড়িয়ে, মিথ্যা প্রচার চালিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিপথগামী করতে চেয়েছে। তারা চেয়েছিলো এর ফলে দেশে যেনো একটি বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। টেলিফোনে কথা বলে রাজনৈতিক নেতারা শিক্ষার্থীদের সামনে রেখে মাঠে নামার নির্দেশ দিয়ে ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করেছে।

৫ তারিখে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা রাজপথ ছেড়ে আবারও ক্লাসে ফেরার পর একটি মহল আন্দোলনের ভিন্ন একটি অধ্যায় শুরু করতে চেয়েছে বলে অভিযোগ করেন শিক্ষামন্ত্রী।

 

এই ‘অধ্যায়’টি তুলে ধরে তিনি বলেন: যারা নিরাপদ সড়ক আন্দোলনটা শুরু করেছিলো, তারা সরে গেলে নতুন একটি চ্যাপ্টার খোলার চেষ্টা দেখা গেছে। আন্দোলন শুরু করাদের হঠিয়ে শিক্ষার্থীদের নিজেদের স্বার্থ হাসিলে ব্যবহার করার চেষ্টা করেছে।

তবিনিময় সভায় কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ও প্রতিনিধিরা গত কয়েক দিনে বিভিন্ন অভিযোগে আটক তাদের কয়েক শিক্ষার্থীকে ক্ষমা করে দেয়ার আহ্বান জানান।

 

আটক শিক্ষার্থীরা সরাসরি অপরাধে জড়িত হলে ক্ষমা করার কোন সুযোগ নাই, তাদের ক্ষমা করা শিক্ষামন্ত্রণালয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের হাতে নেই বলে মন্তব্য করেন শিক্ষামন্ত্রী।

 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন: ৬ আগস্ট তারিখে হঠাৎ করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে পড়ায় একটি ভিন্ন চিত্র তৈরি হয়। স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের চিত্র আর এই চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন ছিলো। এর পেছনে ছিলো গুজব, মিথ্যা প্রচারণা এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির উদ্দেশ্যটা সফল করা।

 

কোন অনভিপ্রেত ঘটনার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় একদিনও বন্ধ হোক, শিক্ষামন্ত্রী তা চান না বলেও জানান।

মতবিনিময় সভার শুরুতেই শোকের মাস আগস্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও পরিবারের অন্য শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা এবং সম্প্রতি বাস চাপায় নিহত দুই শিক্ষার্থীর স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

 

সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) সভাপতি অধ্যাপক আবদুল মান্নান। মত বিনিময়ে রাজধানীসহ দেশের ১০৩টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ চেয়ারম্যান, সদস্য, শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com