সিলেটে এইডস রোগির সংখ্যা ৯০২

সিলেটে এইডস রোগির সংখ্যা ৯০২

সিলেটে এইডস রোগির সংখ্যা ৯০২
সিলেটে এইডস রোগির সংখ্যা ৯০২

লোকালয় ডেস্কঃ সিলেটে গত এক বছরে এইডস রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। এ বছর ৬৬ জনের নতুন করে এইচআইভি ভাইরাস ধরা পড়েছে। এর মধ্যে নারী, পুরুষ, শিশু ও তৃতীয় লিঙ্গের লোকজন রয়েছেন।

এ ধরনের রোগী বাড়ার পেছনের কারণ হিসেবে বিদেশ ফেরত শ্রমিকদের অজ্ঞতাকেই দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা। এ জন্য সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপশি ধর্মীয় অনুশাসন বাড়ানোর তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

সিলেট বিভাগে এইচআইভি ভাইরাস আক্রান্তদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন ‘আশার আলো’ ও ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এমআরটি সেন্টারের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের নভেম্বর পর্যন্ত সিলেট অঞ্চলে এইডস রোগীর সংখ্যা ৯০২ জন। এক বছর আগে ২০১৭ সালের নভেম্বর পর্যন্ত সংখ্যাটি ছিল ৮৩৬ জন।

১৯৯৮ সালে সিলেটে প্রথম এইডস রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। সেই থেকে এখন পর্যন্ত এ অঞ্চলের চার জেলায় ৩৬৬ জন এইডস রোগে মারা গেছেন বলে এ সংস্থার তথ্যে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টদের তথ্য মতে, ২০০৩ সালে সিলেটে এইচআইভি সংক্রমণ ও এইডস রোগে আক্রান্তদের সংখ্যা ছিল ২৮ জন। আর চলতি বছরে এ সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯০২ জনে। ইতোমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩৬৬ জনের। জীবিত আছেন ৫৩৬ জন।

জীবিতদের মধ্যে পুরুষ ২৬৭, নারী ২২৪, শিশু ৪৬ এবং তৃতীয় লিঙ্গের ২ জন রয়েছেন।

আশার আলো সোসাইটির সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়কারী মো. আবদুর রহমান জানান, প্রবাসে কাজ করতে যাওয়া শ্রমিকদের এইচআইভি ভাইরাস ও এইডস সম্পর্কে কোনো জ্ঞান নেই। এ কারণে তারা এ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন বেশি। আর দেশে এসে চক্ষুলজ্জার কারণে তারা বিষয়টি গোপন রাখেন। ফলে তা তাদের স্ত্রীদের মধ্যেও ছড়াচ্ছে। এ জন্য তিনি বিমানবন্দর এবং স্থলবন্দরগুলোতে এইচআইভি পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপনের পরামর্শও দেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com