সংবাদ শিরোনাম :
আজমিরিগঞ্জ কালনী কুশিয়ারা নদীতে ব্যাপক ভাঙ্গন বানিয়াচং ক্রিকেট ক্লাবের নয়া কমিটির অভিষেক ও পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত  ঠাকুরগাঁওয়ে জ্বালানি তেল  সংকট! পীরগঞ্জে ম্যাটস্ এন্ড নার্সিং ইনস্টিটিউটের উদ্বোধন করেন–বিচারপতি মোঃ নজরুল ইসলাম তালুকদার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মালদ্বীপ প্রবাসীদের ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলাম (অব.) এম পি’র জন্মদিন পালন  সায়হাম গ্রুপের উদ্যোগে ২০ হাজার দরিদ্রের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরনের উদ্যোগ বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যেকূটনীতি এবং মানবাধিকার সংস্থার নেতা নির্বাচিত হলেন সিলেটের রাকিব রুহেল ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় ৩ ছাত্রের উপর মধ্যযুগীয় কায়দায় হামলা ব্র্যাথওয়েট হতে পারলেন না ‘ট্র্যাজিক হিরো’ পাওয়েল জলবায়ু অর্থ চুক্তিতে বাধা হতে পারে ভূরাজনীতি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
শ্যামলী থেকে উত্তরা-৭শ’ টাকা ভাড়া সিএনজির

শ্যামলী থেকে উত্তরা-৭শ’ টাকা ভাড়া সিএনজির

http://lokaloy24.com
http://lokaloy24.com

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাস চলাচল বন্ধের কারণে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে বেড়েছে রিক্সা, সিএনজি ও মোটরসাইকেলের দৌরাত্ম্য। দ্বিতীয় দিনের ধর্মঘটে সড়কে বের হওয়াদের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। বিকল্প হিসেবে বাধ্য হয়ে যারা এসব বাহনে উঠছেন তাদেরও গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া। আবার বাধ্য হয়ে অনেকে হেঁটেই রওনা দিচ্ছেন গন্তব্যে। সাধারণ যাত্রীরা বলছেন, সরকার জনগণকে এভাবে ভোগান্তিতে না ফেলে অতি দ্রæত এ ব্যাপারে যেন কার্যকর ব্যবস্থা নেয়।

শনিবার রাজধানীর ধানমণ্ডি, আসাদগেট, শ্যামলী, আগারগাঁও, মিরপুর ১০, ফার্মগেটসহ বেশ কিছু এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, প্রধান সড়কসহ বিভিন্ন অলিগলিতে চলছে রিক্সার দৌরাত্ম্য। গন্তব্যে যেতে রিক্সাচালকরা হাঁকছেন অতিরিক্ত ভাড়া। আর এক একটি সিএনজি দেখলে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন যাত্রীরা। এ সুযোগে বেশি ভাড়া চাইছেন সিএনজিচালকরাও। একই অবস্থা ভাড়ায় চালিত মোটরবাইকগুলোরও।

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে ধর্মঘট। তবে প্রথমদিন ছুটির দিন হওয়ায় খুব একটা প্রভাব পড়েনি জনজীবনে। যদিও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজের পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছিল। শনিবার তাদের ভোগান্তির সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিভিন্ন বেসরকারী প্রতিষ্ঠান ও জরুরী সেবা সংস্থার কর্মীরাও। সকাল থেকেই তাদের সড়কের মোড়ে মোড়ে দীর্ঘসময় অপেক্ষা করতে দেখা গেছে।

http://lokaloy24.com

http://lokaloy24.com

বাস বন্ধ থাকলেও চালু রয়েছে সরকারী পরিবহন সংস্থা বিআরটিসির বাস। যাতে করোনার এই সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মানা তো দূরে থাক কোনরকম জায়গা পাওয়াই যেন হয়ে উঠেছে সোনার হরিণ। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষার পর কোন একটি বাস এলেই হুড়োহুড়ি করে গন্তব্যে যাওয়ার জন্য ওঠা শুরু করছেন অপেক্ষারতরা। প্রতিটি বাসেই দেখা গেছে ভিড়।

শ্যামলী থেকে উত্তরায় অফিস করেন বেসরকারী একটি পোশাক কারখানায় কর্মরত শ্যামল। উত্তরায় নামার পর কথা হলো এই যুবকের সঙ্গে। তিনি জানালেন, সকালবেলা বাসা থেকে বের হয়ে প্রায় দুই ঘণ্টা রাস্তায় অপেক্ষা করেছি। সবশেষ অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে একটি সিএনজি ঠিক করলাম। শ্যামলী থেকে ৭০০ টাকা দিয়ে উত্তরা এলাম। বাস চলাচল বন্ধের সুযোগে যে যেভাবে পারছে এই সুযোগের অপব্যবহার করে চলেছে।

 

রপুরে কথা হয় আরেক যুবক সাইফুল ইসলামের সঙ্গে। পেশায় ব্যবসায়ী সাইফুল বললেন, ‘বাস চলাচল বন্ধ আছে। এই সময় এই যে সিএনজি এবং রিক্সাচালকরা অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছেন, এগুলো নজরদারির জন্যতো কাউকে দেখছি না। কল্যাণপুর থেকে প্রতিদিনই আমাকে কাজের জন্য মিরপুরের দিকে যেতে হয়। রিক্সায় যেখানে প্রতিদিন ৪০ টাকা করে যেতাম, গত দু’দিন ধরে বাস বন্ধ থাকায় সেখানে আমাকে যেতে হচ্ছে ৮০ টাকা করে।

মোহাম্মদপুরের একটি সরকারী কলেজের শিক্ষক রেজাউর রহমান। সকালে জরুরী কাজে কলেজের উদ্দেশে বের হয়েছেন তিনি। এই শিক্ষকের ভাষ্য, ‘রাস্তায় যা চলছে তা রীতিমতো এক ধরনের ডাকাতি। গন্তব্যে যেতে রিক্সা, সিএনজি কিংবা মোটরসাইকেলে ভাড়া চাইছে দ্বিগুণেরও বেশি।

 

 

রবিবার সরকারী সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করবে মালিকদের গাড়ি চালানোর বিষয়টি উল্লেখ করে ঢাকা পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এনায়েত উল্লাহ খান বলেন, নতুন করে ভাড়া নির্ধারণের জন্য মিটিং হবে রবিবার। এর আগ পর্যন্ত মালিক-শ্রমিকরা গাড়ি বন্ধ রেখেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com