রহস্যজনক কয়েক জন সাংবাদিক কাজলের মোটরবাইক ঘিরে

রহস্যজনক কয়েক জন সাংবাদিক কাজলের মোটরবাইক ঘিরে

lokaloy24.com

            অনলাইন ডেস্ক: ফটোসাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজল যেদিন নিখোঁজ হন, সেদিন তিনি অফিসে পৌঁছানোর পর তার কার্যালয়ের সামনে বেশ কয়েক জন ব্যক্তিকে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করতে দেখা গেছে। ঘটনাস্থলের ভিডিও ফুটেজে ঐ ব্যক্তিদের শফিকুলের মোটরসাইকেল নাড়াচাড়া করতে দেখা যায়।  তিন ঘণ্টা পর তিনি যখন তার হাতিরপুলের কার্যালয় ছেড়ে বেরিয়ে যান, তখন ঐ ব্যক্তিরাও ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। গত ১০ মার্চ শফিকুল ইসলাম তার বকশিবাজারের বাসা থেকে দৈনিক পক্ষকাল কার্যালয়ের উদ্দেশে বের হন।

সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, তিনি হাতিরপুলের মেহের টাওয়ারের কার্যালয়ে পৌঁছান বিকাল সোয়া চারটার দিকে। পৌনে সাতটা থেকে তার আর কোনো খবর পাওয়া যায়নি। তার স্ত্রী জুলিয়া ফেরদৌসী পরদিন চকবাজার থানায় নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় সাধারণ ডায়েরি করেন। ১১ মার্চ রাত সাড়ে ১০টার দিকে আদালতের হস্তক্ষেপে চকবাজার থানায় শফিকুল ইসলামের ছেলে মনোরম পলক অপহরণের মামলা করেন।গতকাল শনিবার অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ভিডিও ফুটেজসহ একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দক্ষিণ এশিয়া ক্যাম্পেইনার সাদ হাম্মাদি জানান, সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়া অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের সন্দেহজনক আচরণ স্পষ্টতই প্রমাণ করে কাজলের বিরুদ্ধে পুলিশি তদন্ত শুরুর মাত্র এক দিন পরই তাকে অনুসরণ করা হচ্ছিল। ঐ দিনের পর থেকেই আর তার দেখা মেলেনি এবং কোথায় আছেন, কিছুই জানা যায়নি।

চকবাজার থানার ওসি মওদুদ হাওলাদার বলেন, অ্যামনেস্টি একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে বলে তারা শুনেছেন। তবে ঐ ফুটেজ থেকে কাউকে শনাক্ত করা হয়নি। তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন। সাদ হাম্মাদি বলেন, ‘কাজল কোথায় কী অবস্থায় আছেন, তা অতিসত্বর প্রকাশ করতে এবং যদি রাষ্ট্রীয় হেফাজতে রাখা হয়ে থাকে, তাহলে দেরি না করে তাকে মুক্তি দিতে আমরা কর্তৃপক্ষের কাছে আহ্বান জানাচ্ছি।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com