যে কারণে বাদ পড়লেন শাজাহান-নাহিদ

যে কারণে বাদ পড়লেন শাজাহান-নাহিদ

যে কারণে বাদ পড়লেন শাজাহান-নাহিদ
যে কারণে বাদ পড়লেন শাজাহান-নাহিদ

ঢাকা- আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন মন্ত্রিসভায় স্থান পেয়েছেন প্রায় দুই ডজন নতুন মুখ। আর বাদ পড়েছেন হেভিওয়েট অনেকে। এদের মধ্যে রয়েছেন নৌমন্ত্রী শাজাহান খান ও শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। বিভিন্ন কারণে আলোচিত-সমালোচিত হওয়ায় নতুন মন্ত্রিসভায় ঠাঁই হয়নি তাদের।

নৌমন্ত্রী হিসেবে কারও জায়গা না হলেও এবার শাজাহান খানকে বাদ দিয়ে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরীকে।

এছাড়া শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে বাদ দিয়ে তার জায়গা দখল করেছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এছাড়া এ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছেলে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

নুরুল ইসলাম নাহিদ ও শাজাহান খানের মন্ত্রিত্ব না পাওয়ার বিষয়ে অনেকেই বিভিন্ন কারণ তুলে ধরেছেন।

২০০৯ সাল থেকে টানা দুই মেয়াদে শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন নুরুল ইসলাম নাহিদ। প্রশ্নফাঁস আর কোমলমতি শিক্ষার্থীদের সিলেবাস বৃদ্ধি, জেএসসি-পিইসি পরীক্ষা চালু, পাঠ্যপুস্তকে ভুলসহ নানা কারণে ব্যাপক সমালোচিত শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তার মন্ত্রিত্ব না পাওয়ার অন্যতম কারণ বলে মনে করছেন অনেকেই।

এছাড়া ২০১৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর এক অনুষ্ঠানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শকদের প্রতিবেদন দেয়ার ক্ষেত্রে ‘সহনশীল মাত্রা’য় ঘুষ খাওয়ার বক্তব্য দিয়ে সমালোচিত হন নুরুল ইসলাম নাহিদ।

এদিকে নৌমন্ত্রী শাজাহান খান সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মন্তব্য করে বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন। তার মন্তব্য নিয়ে আলোচনার চেয়ে সমালোচনাই ছিল বেশি। সারাদেশে পরিবহন খাতে একের পর এক নৈরাজ্যের পরও বারবার পরিবহন শ্রমিকদের পক্ষ নেয়ায় তিনি সবচেয়ে বেশি বিতর্কিত হয়েছেন। নানা ইস্যুতে বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে আলোচিত-সমালোচিত শাজাহান খানের পদত্যাগেরও দাবি ওঠে একসময়। তবে নিজের জায়গা ছাড়েননি তিনি।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দাঁড়িয়ে থাকা শিক্ষার্থীদের ওপর বাস চাপায় দুজন প্রাণ হারায়, আহত হয় আরও বেশ কয়েকজন। ওই ঘটনা পর হাসিমুখে বিতর্কিত বক্তব্য দেয়ায় দেশজুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

এছাড়া ২০১১ সালের ১৪ আগস্ট মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদ, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহত হওয়ার ঘটনায় আহতদের দেখতে গিয়ে শাহজাহান খান বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার জন্য চালকেরা দায়ী নন। অবৈধভাবে লাইসেন্স নেয়া অদক্ষ চালকদের কারণে একের পর এক সড়ক দুর্ঘটনায় বহু হতাহতের বিষয় নিয়ে যখন দেশবাসী ক্ষুব্ধ, তখন মন্ত্রী এ মন্তব্য করে বসেন।

গত বছরের ১ মে শাজাহান খান বলেন, ‘উপমহাদেশের মধ্যে বাংলাদেশে দুর্ঘটনা কম ঘটে। বিভিন্ন স্থানে রাস্তার বাঁকগুলো সরলীকরণ, ফুটওভার ব্রিজ, পাতালপথ নির্মাণের ফলে দুর্ঘটনা অনেকটা কমে এসেছে বলেও বিতর্কিত মন্তব্য করেন তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com