ভুতের উসকানিতে এই হত্যাকান্ড!

ভুতের উসকানিতে এই হত্যাকান্ড!

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মার্জরি স্টোনম্যান ডগলাস হাইস্কুলে বন্দুকধারীর গুলিতে ১৭ জন মারা গেছে। ছবি: এএফপি।

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মার্জরি স্টোনম্যান ডগলাস হাইস্কুলে শিক্ষার্থীদের ওপর নির্বিচারে গুলি চালানো নিকোলাসকে এ হত্যাকাণ্ডে প্ররোচিত করেছিল ভূত। ভূত শুধু তাঁকে বলত, ‘জ্বালিয়ে দাও, মেরে ফেলো, ধ্বংস করো।’

 

গতকাল সোমবার তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্য পুলিশ প্রকাশ করে বলে এএফপির খবরে জানানো হয়।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ১৯ বছর বয়সী নিকোলাস ক্রুজ হাইস্কুলে হামলা চালান। এতে ১৭ জন নিহত হয়। তিনি ছিলেন ওই স্কুলেরই সাবেক শিক্ষার্থী। তাঁকে নিয়মশৃঙ্খলা ভাঙার অভিযোগে স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

 

ঘটনার পরে পুলিশ নিকোলাস ক্রুজকে আটক করেছে। পুলিশ বলছে, তাঁকে ধরতে বেগ পেতে হয়নি। গুলি ছোড়ার পর স্বেচ্ছায় তিনি পুলিশের কাছে ধরা দিয়েছেন। তাঁকে ব্রুওয়ার্ড কাউন্টি শেরিফ অফিসে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

 

জিজ্ঞাসাবাদের লিখিত কপিতে বলা হয়, তিনি গোয়েন্দা পুলিশকে বলেন, তাঁর মাথায় ভূত আছে। কয়েক বছর আগে থেকে এটি তাঁকে যন্ত্রণা দিতে শুরু করে। তাঁকে বলে, ‘অস্ত্র কিনে নাও, পশু হত্যা করো ও সবকিছু ধ্বংস করে দাও।’ এই শব্দকে বন্ধ করতে তিনি মাঝেমধ্যেই মাদক সেবন করতেন। জিজ্ঞাসাবাদের কক্ষেও ওই কণ্ঠস্বরটি তাঁকে আত্মহত্যা করতে বলে।

 

২০১৭ সালে নভেম্বরে মায়ের মৃত্যুর পর ও এই হামলা চালানোর দুই মাস আগে নিকোলাস অতিরিক্ত ব্যথানাশক ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন।
দুই বছর আগে অ্যালকোহলের বিষক্রিয়ার মাধ্যমে আত্মহত্যার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন নিকোলাস। তিনি জানান, বন্ধুহীন ও একাকী থাকার কারণে বিষণ্ন হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

এই ঘটনা ছিলে ২০১২ সালের পর যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলগুলোয় ঘটা সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী ঘটনা ।

এই হামলায় নিকোলাস সেমি অটোমেটিক রাইফেল এআর-১৫ ব্যবহার করেছিলেন। কেন তিনি এটি কিনেছিলেন? জানতে চাইলে নিকোলাস বলেন, ‘কারণ, এটি দেখতে খুব ফাটাফাটি ছিল।’ তবে তিনি এই রাইফেল বৈধ উপায়েই কিনেছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com