ডায়াবেটিস-কিডনির সমস্যা প্রতিরোধে টমেটো

ডায়াবেটিস-কিডনির সমস্যা প্রতিরোধে টমেটো

অনেকেই জানেন টমেটো ত্বক ও চুলের জন্য উপকারি। তাছাড়া এটা ক্যানসার প্রতিরোধেও সাহায্য করে। কিন্তু এই গুণগুলোর পাশাপাশি টমেটো যে মেদ কমাতেও সাহায্য করে তা হয়তো অনেকেরই অজানা। বিশেষজ্ঞরা বলেন, কাঁচা টমেটো দিনে ৪টি থেকে ৫টি খাদ্য তালিকায় রাখলে শরীরে কোলেসিসটোকিনিন নামে এক ধরনের হরমোন নিঃসৃত হয় যা পেটের এবং ইনটেস্টাইনের মধ্যে যে ভাল্ভ রয়েছে তা সংকুচিত করে দেয়। ফলে পেট ভরতি থাকে, খিদে কম পায়। আর তাতে ওজন বাড়ার সম্ভাবনাও থাকে না।এছাড়াও টমেটোর মধ্যে রয়েছে আরও বিশেষ কিছু গুণাগুণ, আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই গুণগুলি কী কী –

১। টমেটো রক্তের শর্করার পরিমাণ ঠিক রাখে। ফলে ইনসুলিন নিঃসরণ কমে যায় এবং যে হরমোন চর্বি সঞ্চয় ও ওজন বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে সেটিও নিয়ন্ত্রিত থাকে।

২। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা ছাড়াও শরীরের অন্যান্য বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে টমেটো বেশ উপকারি। যেমন ডায়াবেটিস বা কিডনির সমস্যা রুখতেও এটি সাহায্য করে। এছাড়াও রোগ প্রতিরোধে টমেটোর আরও বেশ কয়েকটি গুণ বর্তমান।

৩। টমেটোতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন কে রয়েছে। এগুলো হাড়ের টিস্যু ঠিকঠাক রাখতে ও ছোটখাটো হাড় সংক্রান্ত সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে।

৪। চোখের দৃষ্টি উন্নত করতে টমেটোর ভূমিকা অপরিসীম। তাই প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় টমেটো থাকলে তা আপনার চোখের জন্য উপকারি।

৫। আবার ধূমপানের ফলে শরীরে যে ক্ষতি হয় তার প্রভাব কমাতে পারে টমেটো। এতে বিদ্যমান রয়েছে কোমেরিক অ্যাসিড ও ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড। যা শরীরে ধূমপান থেকে ক্ষতি কমাতে বিরাট সাহায্য করে।

৬। এছাড়াও, টমেটোতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, সি ও বিটা ক্যারোটিন রয়েছে। এগুলো অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট হিসেবে কাজ করে, রক্তের ক্ষতিকারক রাসায়নিকের উপস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com