ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরপাড়া গ্রামে রেজিনার বিয়ে তালাক হয়েছে, এরপরে স্ত্রী হিসেবে পাবার চেষ্টায় স্বামী আটক ।

ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরপাড়া গ্রামে রেজিনার বিয়ে তালাক হয়েছে, এরপরে স্ত্রী হিসেবে পাবার চেষ্টায় স্বামী আটক ।

http://lokaloy24.com/
http://lokaloy24.com/

ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরপাড়া গ্রামে রেজিনার বিয়ে তালাক হয়েছে, এরপরে স্ত্রী হিসেবে পাবার চেষ্টায় স্বামী আটক  ।
মোঃ মজিবর রহমান শেখ,,
প্রায় বছর খানেক আগে স্ত্রী রোজিনা বেগমের(৩৫) সাথে বিয়ের তালাক  হয়েছে মানিক মিয়ার(৪৬)। কিন্তু সেই বিয়ের তালাক মানতে নারাজ স্বামী মানিক মিয়া। তাই বার বার স্বামীর অধিকার চেয়ে ছুটে যান রোজিনার কাছে। সবশেষে অতিষ্ঠ হয়ে সাবেক স্বামীকে পুলিশের হাতে তুলে দেন রোজিনা।
 রবিবার(১৫ নভেম্বর) রাতে সাবেক স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে মানিক মিয়াকে পুলিশ আটক করে। ঘটনাটি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার মন্দির পাড়ায় ঘটেছে। এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, প্রায় বছর দুয়েক আগে প্রথম স্বামীকে ছেড়ে মানিকের সাথে বিয়ে করেন রোজিনা বেগম। মানিক মিয়াও প্রথম স্ত্রীকে রেখে রোজিনা নিয়ে ঢাকায় সংসার করতে থাকেন। তবে বিয়ের বছর খানেক পরেই বনিবনা না হওয়ায় বেশ কিছু অভিযোগ এনে স্বামী কে তালাক দেন রোজিনা। সেই তালাক মেনে নিয়ে প্রথম স্ত্রীর কাছে ফিরে জান মানিক মিয়া। রোজিনাও ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম ঘরের ছেলে মেহেদির বাসায় বসবাস শুরু করেন। কিন্তু মাস ছয়েক পর থেকেই আবার রোজিনার পিছু করতে থাকেন মানিক। বার বার রোজিনার বাসায় গিয়ে তালাক হয়নি জানিয়ে নিজের বাসায় থাকতে বলে মানিক। না যেতে চাইলে মারধোর করতে থাকে।
রোজিনার প্রতিবেশী রাহাত জানায়, কয়দিন পর পরেই রোজিনার বাসা থেকে চিল্লানির শব্দ শোনা যায়। মানিক রোজিনাকে বাসায় নিয়ে যাইতে চায়। কিন্তু রোজিনা মানা করলেই মাইর শুরু করে মানিক। ১৫ নভেম্বর সোমবার একই ঘটনা চলতে থাকে। মারামারির এক পর্যায়ে রোজিনা ছুটে বাইরে চলে আসে। পরে এলাকাবাসীর সাহায্যে পুলিশে খবর দেয়।
রোজিনা বলেন, উনাকে বিয়ে করা আমার সবচাইতে বড় ভুল ছিলো। ঐ লোক(মানিক) আমার গয়না বিক্রি করে খাইছে, আমার কাছে থাকা সব টাকাও খাইয়া শেষ করছে। আমাকে মারধোর করতো। তাই তাকে তালাক দিয়ে দিছি। এখন আমাকে আবার সংসার করতে বলে। তা না হইলে আমার সাথে নিজের তোলা গোপন ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেবার হুমকি দেয়। মারধোর করে। রোজিনা জানান, মানিকের কাছ থেকে রেহাই পেতে এর আগে দুইবার স্থানীয় প্রতিনিধি ও এলাকাবাসী নিয়ে বসেও কোনো লাভ হয়নি। পরে পুলিশে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। তবুও মানিক বিরক্ত করতেই থাকে। অবশেষে পুলিশে কল দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে মানিককে তুলে দিয়েছে সে। তবে জেল থেকে বের হয়ে মানিক আবার কিছু করতে পারে। সেই ভয়ে নিরাপত্তা নিয়ে তিনি শঙ্কিত। ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তানভীরুল ইসলাম জানান, রোজিনা এর আগেও আমাদেরকে অভিযোগ করেছে। তখন মানিককে সাবধান করে দেওয়া হয়েছে। তারপরও মানিক রোজিনাকে অত্যাচার করতে থাকে জানার পরই তাকে আটক করে আনা হয়েছে। পরে সাবেক স্ত্রী রোজিনা বাদি হয়ে করা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
মোঃ মজিবর রহমান শেখ
০১৭১৭৫৯০৪৪৪

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com