হবিগঞ্জের ‘পৈলের সাব’র প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।

হবিগঞ্জের ‘পৈলের সাব’র প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।

হবিগঞ্জের ‘পৈলের সাব’র প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ
.
নিজস্ব প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান বাংলাদেশের প্রখ্যাত সালিশি বিচারক পৈলের সাব খ্যাত সৈয়দ আহমদুল হক এর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী আজ।

২০২০ সালের আজকের এই দিনে (১৩ মার্চ) নিজবাড়ি পৈলে বার্ধক্য জনিত কারনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছিলে। তিনি হবিগঞ্জ সদর উপজেলা ও পৈল ইউনিয়নের পরপর নির্বাচিত কয়েকবারের চেয়ারম্যান ছিলেন।

মরহুমের মৃত্যুবার্ষিকীতে বিভিন্ন এলাকায় কোরআন খতম ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছে তার ভক্তরা।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে, ১ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর বড় ছেলে যুক্তরাজ্য প্রবাসী, ছোট ছেলে সৈয়দ মঈনুল হক আরিফ পৈল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও একমাত্র মেয়ে স্বামীর সাথে শ্রীমঙ্গলে বসবাস করেন। হবিগঞ্জের পৈল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান পীর সৈয়দ জাহেদুল হকের বড় ছেলে সৈয়দ আহমদুল হক বৃন্দাবন সরকারী কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করে কোঅপারেটিভ ব্যাংকে চাকুরী করেন।

১৯৮৫ সালে স্থানীয় জনগনের অনুরোধ ও তাঁর মায়ের ইচ্ছায় সদর উপজেলার চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। বর্তমান মেয়াদ ছাড়া বাকি সকল মেয়াদে তিনি সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ছিলেন। মরহুম পীর মাওলানা আব্দুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলীর জামাতা সৈয়দ আহমদুল হক হবিগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহের সেক্রেটারী বিপিন পাল স্মৃতি পাঠাগারের সভাপতি ও সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) হবিগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি ছিলেন। তিনি হবিগঞ্জের বিবেক ও সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব ছিলেন। তাঁর সম্মোহনি ব্যক্তিত্ব, বিচক্ষনতা ও ন্যায়বিচারে হবিগঞ্জ জেলার অনেক সামাজিক বিবেদের সমাধান হয়েছে ও রক্তপাত থেকে হবিগঞ্জসহ সিলেট বিভাগের অনেক এলাকা রক্ষা পেয়েছে।

নিম্নে পইলের সাবের জীবনবৃত্তান্ত তুলে ধরা হলো-
সৈয়দ আহমদুল হক (পইলের সাব) ৩১শে জানুয়ারি ১৯৪৯ খ্রিষ্টাব্দে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ৪নং পইল ইউনিয়নের অন্তর্গত পইল গ্রামের পইল সাহেব বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। মাটি ও মানুষের নেতা খ্যাত সৈয়দ আহমদুল হক। বাবা সৈয়দ জাহেদুল হক (ময়না মিয়া) সাহেব ছিলেন অত্র ইউনিয়নের বার বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান এবং একজন সজ্জ্বন ব্যক্তি। জাত-ধর্ম নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষকে ভালবাসতেন এবং সম্মান করতেন।

সৈয়দ আহমদুল হক ১৯৬৮ খ্রিষ্টাব্দে তৎকালিন সময়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পরিচালিত বৃন্দাবন সরকারি কলেজ থেকে বি.কম ডিগ্রি অর্জন করেন।

শামছুল উলামা ফুলতলীর পীর সাহেব নামে প্রসিদ্ধ ও পরিচিত মরহুম হযরত আল্লামা আব্দুল লতিফ চৌধুরী (ফুলতলী, জকিগঞ্জ, সিলেট) -এর জামাতা সৈয়দ আহমদুল হক।

চার ভাইয়ের মধ্যে জ্যৈষ্ঠ সৈয়দ আহমদুল হক। অন্য তিনজনের মধ্যে সৈয়দ মাহমুদুল হক, ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। ডাঃ সৈয়দ হামেদুল হক, চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন। মাওলানা সৈয়দ সাজিদুল হক (পীর সাহেব) যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী।

সৈয়দ আহমদুল হক দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জনক- ১। সৈয়দ লুৎফুল হক এজাজ, যুক্তরাজ্য প্রবাসী। ২। সৈয়দ মঈনুল হক আরিফ, ৪নং পইল ইউপির জননন্দিত চেয়ারম্যান। কন্যা- সৈয়দা সাবিহা সুলতানা, বিবাহিত, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার স্থায়ী বসবাসরত।

সৈয়দ আহমদুল হক ১৯৬৮-১৯৭০ খ্রিষ্টাব্দ পইল হাই স্কুলে (অবৈতনিক) প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭০-১৯৮৩ খ্রিষ্টাব্দ পরির্দশক হিসাবে সমবায় বিভাগ, হবিগঞ্জ দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৪ খ্রিষ্টাব্দে গণদাবীর প্রেক্ষিতে সরকারি চাকুরী হতে ইস্তফা দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন করেন এবং ৪নং পইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৮৫ খ্রিষ্টাব্দে ১ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্ধিতা করে হবিগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৯০ খ্রিষ্টাব্দে ২য় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্দলীয় প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্ধিতা করে বিপুল ভোটে হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

১৯৯২ খ্রিষ্টাব্দে উপজেলা পরিষদ বিলুপ্তির পর পইল ইউনিয়নবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় আবারও ৪নং পইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ১৯৯৭ খ্রিষ্টাব্দ এবং ২০০২ খ্রিষ্টাব্দে আবারও অত্র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০০৯ খ্রিষ্টাব্দে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় ৩য় বারের মতো হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দে ৪র্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী মোঃ মোতাচ্ছিরুল ইসলামকে প্রায় ১৩,০০০ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে চতুর্থবারের মতো হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন সৈয়দ আহমদুল হক (পইলের সাব)। ন্যায় বিচার প্রত্যাশীদের ভরসার স্থল সৈয়দ আহমদুল হক সাহেব অপরাধ দমন কমিটি হবিগঞ্জ, সম্মিলিত নাগরিক কমিটি, হবিগঞ্জ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, সৈয়দ আহমদুল হক (পইলের সাব) সমবায় ব্যাংক হবিগঞ্জ-সহ বিভিন্ন শিক্ষা, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com