সংবাদ শিরোনাম :
আজমিরিগঞ্জ কালনী কুশিয়ারা নদীতে ব্যাপক ভাঙ্গন বানিয়াচং ক্রিকেট ক্লাবের নয়া কমিটির অভিষেক ও পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত  ঠাকুরগাঁওয়ে জ্বালানি তেল  সংকট! পীরগঞ্জে ম্যাটস্ এন্ড নার্সিং ইনস্টিটিউটের উদ্বোধন করেন–বিচারপতি মোঃ নজরুল ইসলাম তালুকদার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মালদ্বীপ প্রবাসীদের ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলাম (অব.) এম পি’র জন্মদিন পালন  সায়হাম গ্রুপের উদ্যোগে ২০ হাজার দরিদ্রের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরনের উদ্যোগ বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যেকূটনীতি এবং মানবাধিকার সংস্থার নেতা নির্বাচিত হলেন সিলেটের রাকিব রুহেল ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় ৩ ছাত্রের উপর মধ্যযুগীয় কায়দায় হামলা ব্র্যাথওয়েট হতে পারলেন না ‘ট্র্যাজিক হিরো’ পাওয়েল জলবায়ু অর্থ চুক্তিতে বাধা হতে পারে ভূরাজনীতি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সুনামগঞ্জের আলোকিত আরেং পরিবারের সুখ ও দুঃখ নিয়ে কিছু কথা

সুনামগঞ্জের আলোকিত আরেং পরিবারের সুখ ও দুঃখ নিয়ে কিছু কথা

সুনামগঞ্জের আলোকিত আরেং পরিবারের সুখ ও দুঃখ নিয়ে কিছু কথা
সুনামগঞ্জের আলোকিত আরেং পরিবারের সুখ ও দুঃখ নিয়ে কিছু কথা

ফরিদ মিয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর ইউনিয়নের ঘামাইতলা গ্রামে ৬ টি খৃষ্টান ধর্মালম্বি আরেং পরিবার আছে তাদের সাথে কথা বলে জানাযায় ধনপুর ইউনিয়নে মোট ৩৩ টি গ্রাম আছে তার মধ্যে ঘামাইতলা একটি গ্রাম। পাক- ভারত বিভক্ত হওয়ায় সময় এই এলাকা থেকে অনেক খৃষ্টান পরিবার চলে যায় পরে ভিবিন্ন এলাকাতে ভিবিন্ন গুত্রে খৃষ্টানরা বসবাস শুরে করে। ঘামাইতলাতে সেই সময় রুচিতা আরেং’র পরিবারেরা বসবাস শুরুকরে সেই সময় থেকে আজওবদি সুখ দুঃখ কে সাথি করে চলে আসছেন তারা।আরেং’দের ছয়টি পরিবারে ২১ জন সদস্য নিয়ে তাদের জেন এক অন্য জগৎ। রুচিতা আরেং স্বামিঃ পিটার মারাক তাদের ৫ ছেলেমেয়ে এমন দুর্ঘম এলাকাতে থেকেও লেখাপড়ায় ছিলেন সবাই আগ্রহি তাই তারা পত্যেকেই  একন সয়ংসম্পূন্ন, সঞ্জয় আরেং তিনি কম্পেশন( ইন্টাঃ) একাউন্টেন হিসাবে কর্মরত আছেন, পল্লবী আরেং তিনি নারায়নতলা মিশনারী স্কুলে শিক্ষকতায় কর্মরত আছেন, রাপন আরেং তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তে কর্মরত আছেন, ডানিয়েল আরেং তিনি একটি বেসরকারি কোম্পানি তে কর্মরত আছেন অপরুপা আরেং তিনি ঢাকার একটি সুপ্রতিষ্ঠিত কোম্পানিতে কর্মরত আছেন,  সুচিত্রা আরেং স্বামিঃদিলিপ ম্রি তাদের চার মেয়ে, কোহেলিকা আরেং শিক্ষানিবেশ এডভোকেট ঢাকায় কর্মরত আছেন,কাডলি আরেং ঢাকার একটি প্রতিষ্টিত হাসপাতালে নার্স হিসাবে কর্মরত আছেন,কুমকুম আরেং সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ অধ্যায়নরত আছেন,কনক আরেংস্তানিয় স্কুলে অধ্যায়নরত আছেন
এভাবেই তাদের ৬ পরিবারের অন্যান্ন সদস্যরা আলো ছরিয়ে আসছেন সমাজের ভিবিন্ন জায়গায় সবাই কে নিয়ে সুখেই আছেন বলে জানান এই আরেং ধম্পতিরা  সাথে সাথে কিছু না পাওয়ার বেদনাও  আছে তাদেরমধ্যে.আলাপকালে তারা জানান বিদ্যুৎ ‘র আলো আজও আসেনি তাদের গ্রামে, একটি কাচাঁ মাটির রাস্তা ১৯৯০ সালে দেওয়া হলেও পাকারাস্তা করনের নেই কোন উদ্যোগ, সরকারি অনুদানে বিশুদ্ধ পানির টিউবওয়েল আজও পাইনি আমরা। আমাদের দাবী এই মৌলিক সমস্যা গুলি আপনাদের মাধ্যমে যেন যথাযত কতৃপক্ষের নজরে আসে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ধনপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন বিদ্যুতের টেন্ডার হয়েছে অচিরেই আলো জ্বলবে ইনশাআল্লাহ, কাচাঁ মাটির রাস্তা পাকা করনের বিষয়টি আমাদের বোর্ড মিটিংগে আলোচনা হয়েছে টিউবওয়েলের বিষয়টি ও আমাদের পরিকল্পনার মধ্যে আছে  অচিরেই সব বিষয়ের সমাধানে আমরা উদ্যোগ গ্রহন করবো।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com