সিমেন্ট-বালুর বদলে মাটি দিয়ে বসানো হচ্ছে থানার টাইলস!

সিমেন্ট-বালুর বদলে মাটি দিয়ে বসানো হচ্ছে থানার টাইলস!

lokaloy24.com
lokaloy24.com

সৈয়দ হাবিবুর রহমান ডিউক: হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে নব নির্মিত হাইওয়ে থানার ফ্লোরের টাইলস সিমেন্ট-বালুর বদলে মাটি দিয়ে লাগানো হচ্ছে। টাইলসের এমন কাজ দেখে অবাক হন হাইওয়ে থানার ওসি মাইনুল ইসলাম। বুধবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে মাটি দিয়ে টাইলস লাগানোর কাজ হাতে নাতে ধরেন তিনি। পরে বিষয়টি উর্ধতন কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন।

lokaloy24.com

তবে অনিয়ম এখানেই শেষ নয়, একই ভবন নির্মাণে ব্যবহার করা হয়েছে নিন্মমানের রড, সিমেন্ট। এতে উদ্বোধনের আগেই দেয়ালে দেখা দিয়েছে ফাটল।
এমন অবস্থায় ভবনের পুরো কাজ নিয়ে সন্তুষ্ট নয় হাইওয়ে পুলিশ। ইতোমধ্যে হাইওয়ে পুলিশ অনিয়মের বিষয়ে পুলিশ সদর দপ্তরকে জানিয়ে চিঠি দিয়েছে।জানা যায়, ২০১৮ সালের ১১ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স মোস্তফা কামাল নিয়াজ পার্ক ৪ কোটি ৪৬ লাখ ৪৫ হাজার ১২৫ টাকা ব্যয়ে তিনতলা ভবন নির্মাণ করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। নতুন থানা নির্মাণে বাস্তবায়নকারী সংস্থা হিসেবে দায়িত্ব পায় বাংলাদেশ পুলিশ ও গণফুর্ত অধিদপ্তর।

সরেজমিনে দেখা যায়, শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার নবনির্মিত ভবনের কাজ প্রায় শেষ হয়ে এসেছে। উদ্বোধনের আগেই ভবন নির্মাণে নানা অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুরো ভবনের অনেক জায়গায় পিলারে ধরেছে ফাটল। অন্যদিকে ফ্লোরের টাইলস লাগানো হচ্ছে সিমেন্টের আর বালুর বদলে মাটি দিয়ে। এমন টাইলসের জোড়ার স্থায়ীত্ব নিয়ে সন্দীহান সংশ্লিষ্টরা। আর টাইলস মিস্ত্রীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী, প্রায় ১৫ হাজার স্কয়ার ফিট টাইলসের কাজ করা হয়েছে।

এছাড়াও ভবন নির্মাণে নিম্নমানের রড, ইট ব্যবহার করার খবরও পাওয়া গেছে। হাইওয়ে পুলিশের ভবন নির্মাণে এমন অভিযোগে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী।টাইলস মিস্ত্রী রায়হান জানান- ঠিকাদারের কথা অনুয়ায়ী কাজ করতাছি। ঠিকাদার যেভাবে বলবে আমার তো সেভাবেই কাজ করতে হবে।
ঠিকাদারের ম্যানাজার সামছুল করিম টাইলস মাটি দিয়ে লাগানোর বিষয়ে বলেন- টাইলস লাগানোর জন্য বালি রাখা আছে। মিস্ত্রী কেন মাটি দিয়া লাগাইলো তা বোধগম্য নয়। অভিযোগ পেয়ে সব উঠিয়ে নতুন করে বসানো হবে। ইতোমধ্যেই টাইলস মিস্ত্রীকে বিদায় করে দেয়া হয়েছে।

আর ফাটলের বিষয়ে তিনি বলেন, রৌদ আর বৃষ্টির কারণে ফাটল দেখা দিছে। ভবন বুঝিয়ে দেয়ার সময় সব টিকটাক করে দেয়া হবে।
আর শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইনুল ইসলাম বলেন, ভবনের নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে এসে দেখি বালু আর সিমেন্টের বদলে মাটি দিয়ে টাইলস বসানো হচ্ছে। সাথে সাথে কাজ বন্ধ করে বিষয়টি আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছে। এ বিষয়ে তারাই সিদ্ধান্ত নিবেন।
সিলেট রেঞ্জের হাইওয়ে পুলিশের এএসপি শহিদউল্লাহ বলেন, নির্মানাধীন থানা ভবনের কাজে অনিয়মের বিষয়টি সদর দপ্তরে জানানো হয়েছে। ঠিকাদার বলেছে সব টিকটাক করে দিবে। আর যেহেতু ভবন এখনো আমরা বুঝে নেইনি তাই ভবন বুঝে নেয়ার আগে সব টিকটাক আছে কি-না দেখে নিবো। ত্রুটিপূর্ণ ভবন আমরা বুঝে নিব না।
এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ গণপূর্ত অধিদপ্তরের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী ও হাইওয়ে থানার নির্মানাধীন ভবনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (এসও) মাহবুবুল আলম শামীম এ বিষয়ে বক্তব্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com