সংবাদ শিরোনাম :
শায়েস্তাগঞ্জে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন প্রার্থীরা

শায়েস্তাগঞ্জে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন প্রার্থীরা

শায়েস্তাগঞ্জে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন প্রার্থীরা
শায়েস্তাগঞ্জে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন প্রার্থীরা

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জ সদর উপজেলা থেকে বিভক্ত হওয়া দেশের ৪৯২তম উপজেলা শায়েস্তাগঞ্জ। ১টি পৌরসভা ও তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে এ উপজেলায় ভোটার সংখ্যা প্রায় ৪৬ হাজার। ইসির ঘোষনা অনুযায়ী আগামী ১৮ জুন নবগঠিত শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পর থেকে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা কোমর বেধে মাঠে নেমে পড়েছেন। নতুন উপজেলা হিসেবে ভোটারদের মধ্যেও নির্বাচনের আমেজ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ভোটররা প্রার্থীদের নিয়ে করছেন আলোচনা-সমালোচনা। কার ইমেজ কি রকম, কাকে দিয়ে হবে। এদিকে প্রার্থীরাও চষে বেড়াচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে। প্রতিশ্রæতি দিচ্ছেন নির্বাচিত হলে করবেন উন্নয়ন, থাকবেন জনগণের পাশে।

সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে যাদের নাম শুনা যাচ্ছে- আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আলী আহমেদ খান, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বিএনপি নেতা গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বেলাল।

ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে যাদের মাঠে দেখা যাচ্ছে- সৈয়দ তানবির আহমেদ জুয়েল, বদরুল আলম দিপন, খন্দকার শফিক মিয়া সরদার, গাজিউর রহমান ইমরান।

ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) পদে যাদের নাম শুনা যাচ্ছে- সাবেরা সুলতানা হেপী, মমতাজ ইদ্রিছ ডলি, পারভিন আক্তার ও মুক্তা আক্তার।

চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল হবিগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি ইতোমধ্যে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন। তিনি মনে করেন দল থাকে যোগ্য দেখেই নৌকা প্রতীক তার হাতে তুলে দেয়া হয়েছে, তাই জয় নিশ্চিত তারই। তিনি বলেন, আমি সব সময়ই জনগণের সঙ্গে ছিলাম। দীর্ঘদিন ধরে এলাকার মানুষের প্রয়োজনে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছি। এখনও ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছি। বর্তমান সরকারের আমলে শায়েস্তাগঞ্জে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আমি নির্বাচিত হলে এ উন্নয়ন কাজকে তরান্বিত করতে কাজ করে যাব।

আরেকজন চেয়ারম্যান প্রার্থী আলী আহমেদ খান। তিনি হবিগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও ৮ নং শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান। তিনি দীর্ঘদিন যাবত আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত থাকলেও দলীয় মনোনয়ন থেকে বঞ্চিত হয়েছেন বলে মনে করেন। তবে জনসেবায় অভিজ্ঞতা থাকায় জনগণ তাকে নির্বাচিত করবেন বলে আশাব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, একাধিকবার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে মানুষের সেবা করেছি। সুখে দুঃখে পাশে থেকেছি। ভবিষ্যতেও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলাবাসীর সেবা করতে চাই। সেজন্যই আমি প্রার্থী হয়েছে।

গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বেলাল উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক। তিনি স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচনে প্রার্থী হবেন বলে আশাব্যক্ত করেছেন। উপজেলার নুরপুর ইউনিয়ন পরিষদে টানা ৫ বার চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি মনে করেন নির্বাচিত হলে জনসেবার দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে উপজেলাবাসীর সেবা করবেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন বলেন, আগামী ১৮ জুন নবগঠিত শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভোট গ্রহণের জন্য প্রস্তুতি চলছে।

এর আগে ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস-সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) বৈঠকে শায়েস্তাগঞ্জকে দেশের ৪৯২তম উপজেলা হিসেবে অনুমোদন দেয়া হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com