সংবাদ শিরোনাম :
শুল্ক ফাঁকির শতাধিক বিলাসবহুল গাড়ি এখন সিলেটে! দুবাইয়ে চাকরি দেয়ার কথা বলে টাকা আত্মসাত ॥ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা অবশেষে আবর্জনামুক্ত হচ্ছে হবিগঞ্জ শহরে আধুনিক স্টেডিয়ামের পাশ হবিগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে জামায়াত নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা অপরাধ কর্মকাণ্ড রোধে সতর্ক পুলিশ শাহজীবাজার মাজারে প্রশাসনের আদেশ অমান্য করে কাফেলার আয়োজন সংবাদ প্রকাশের পর গার্নিং পার্কে মিনি পতিতালয়ের সন্ধান ডিবির অভিযানে ৫ কলগার্লসহ ৩ খদ্দর আটক কোরেশনগরে হোটেল যুবরাজ থেকে লাশ উদ্ধার ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে আর্জেন্টিনা ছেলের বিয়ের দাওয়াতে বের হয়ে বাড়ি ফেরা হলো না মায়ের
রাজধানীতে ছিনতাই করতে গিয়ে গণধোলাই খেল পুলিশ!, ভিডিও ভাইরাল

রাজধানীতে ছিনতাই করতে গিয়ে গণধোলাই খেল পুলিশ!, ভিডিও ভাইরাল

রাজধানীতে ছিনতাই করতে গিয়ে গণধোলাই খেল পুলিশ!, ভিডিও ভাইরাল
রাজধানীতে ছিনতাই করতে গিয়ে গণধোলাই খেল পুলিশ!, ভিডিও ভাইরাল

ঢাকা- রাজধানির মতিঝিলে মোহামেডান স্পোটিং ক্লাবের সামনে এক যুবকের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা ছিনতাই করতে গিয়ে গণধোলাই খেলেন আল মামুন (৩৫) নামে এক পুলিশ কনস্টেবলসহ দুইজন। এরপর জনতা তাদের আটক করে মতিঝিল থানায় সোর্পদ করেন।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। ছিনতাইয়ের সময় তাদের সঙ্গে থাকা মোটর সাইকেলটি জব্দ করেছে পুলিশ। জব্দ হওয়া মোটর সাইকেলটির (ঢাকা মেট্টো ল ২৪-৩৬৯৯) সামনে পুলিশ লেখা রয়েছে।

এদিকে পুলিশ সদস্যের ১০ লাখ টাকা ছিনতাই চেষ্টার ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে ভুক্তভোগী ওই যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখা যায়। এ সময় কয়েকজন ক্ষুব্ধ জনতা আটক পুলিশ সদস্যকে পিটুনি দিতেও দেখা যায়।

এদিকে ১০ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় বংশাল থানা পুলিশের কনস্টেবল আল মামুনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলার অন্য আসামির একজনের নাম জিতু, তবে আরেকজন অজ্ঞাতনামা।

এদিন দিবাগত রাত ১টার দিকে মতিঝিল থানায় এই মামলা করা হয়। ছিনতাইয়ের অভিযোগে মামলা নম্বর-৮। মামলার বাদী ছিনতাইয়ের শিকার আবুল কালাম আজাদ।

ভুক্তভোগী যুবক আবুল কালাম জানান, তিনি ব্যবসা করেন। যমুনা ব্যাংকের মতিঝিল শাখা থেকে ১০ লাখ টাকা তুলে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় দুই ব্যক্তি তাকে বলে, ‘আমরা পুলিশ, আমাদের সঙ্গে তোকে যেতে হবে। গাড়িতে ওঠ, তোকে অনেক দিন ধরে খুঁজতেছি।’

আমি বললাম, ‘আমি তো পুলিশের গাড়ি চিনি। এটা তো পুলিশের গাড়ি না, আর আপনারা যদি পুলিশ হয়ে থাকেন তাহলে মতিঝিল থানায় নিয়ে চলেন’ তখন তাকে হ্যান্ডকাপ দিয়ে আঘাত করা হয়। এতে তার মাথা ফেটে যায়।

ঘটনার সময় উপস্থিত পথচারী মাহিন জনি বলেন, ‘ব্যবসায়ীর মাথা ফেটে যাওয়ার পর পথচারীরা সবাই এসে লোক দুটোকে আটক করে। এরপর মতিঝিল থানায় তাদের সোপর্দ করে। দুজনের মধ্যে একজন নিজেকে পুলিশ বলে জানায়। তার মোটরসাইকেলেও পুলিশ লেখা ছিল।’

মতিঝিল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মনির হোসেন মোল্লা গণমাধ্যমকে বলেন, টাকা ছিনতাইয়ের সময় জনতার রোষানলে পড়া পুলিশ কনস্টেবল মামুন পাওনা টাকা তুলে দেওয়ার কথা বললেও প্রাথমিক তদন্তে এর কোনো সত্যতা মেলেনি। মামুন, জিতুসহ মোট তিনজন ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই টাকার ব্যাগ টান দেয় এবং বাধা দিলে পুলিশের হ্যান্ডকাপ দিয়ে বাদীর মাথায় আঘাত করে।

মনির হোসেন বলেন, মামুন যদি আসলেই পাওনা টাকা তুলে দিতে সেখানে যেত, তাহলে টাকার ব্যাগ নিয়ে থানায় ফিরতো। কিন্তু সেটি না করে তারা টাকা নিয়ে অন্যদিকে পালানোর চেষ্টা করেছে।

মতিঝিল থানা পুলিশের এসআই নুরে আলম বলেন, আল মামুন পুলিশের গাড়িচালক। যখন যে থানায় থাকেন সেই থানার গাড়ি চালান। কিছুদিন হয়েছে তিনি বংশাল থানায় বদলী হয়েছেন। এর আগে তিনি মতিঝিল থানায় তিন বছর চাকরি করেছেন। সেই কারণে হয়ত বংশাল থেকে এসে মতিঝিলে ছিনতাইয়ের সাহস পেয়েছেন।

আরেক আসামি অজ্ঞাতনামা কেন জানতে চাইলে পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘মামুন আর জিতু তার নাম বলতে পারেনি। তাই তদন্তে নাম ঠিকানা বেরিয়ে এলে চার্জশিটে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।’

বংশাল থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীন ফকির বলেন, আল মামুন মঙ্গলবার রাতে ডিউটি করে। তাই দিনে তার বিশ্রাম ছিল। দিনে সে কোথায় ছিল, সে আমাকে কিছু জানায়নি। তিনি ঘটনাটি শুনেছেন বলে জানান।

ছিনতাইয়ের এই ঘটনার সঙ্গে যদি তার জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়, আইনগতভাবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানান তিনি।

https://www.facebook.com/watch/?v=2394658507309034

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com