সংবাদ শিরোনাম :
‘হাওয়া’ ছবিতে বন্য প্রাণী আইন লঙ্ঘিত হয়েছে, দাবি বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের আগামীতে সিলেট-নিউইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট: বিমান প্রতিমন্ত্রী কাতার বিশ্বকাপ একদিন এগিয়ে আনলো ফিফা ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত সমুদ্রবন্দরে, বৃষ্টির পূর্বাভাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি বাড়ানোর বিষয়ে ভাবছে সরকার : শিক্ষামন্ত্রী অটোরিকশা থেকে লাফ দিয়ে পড়ে মারা গেলেন শায়েস্তাগঞ্জে স্কুল শিক্ষিকা সুপ্তা বৈশ্বিক মন্দায়ও অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশ ভালো আছে : সিলেটে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মা সেতু হয়ে টুঙ্গিপাড়ায় গেলেন প্রধানমন্ত্রী নবীগঞ্জে গ্রামীণফোনের নেটওয়ার্ক বিড়ম্বনায় গ্রাহকরা মাকে খুন করে লাশের পাশেই রাত কাটালেন ছেলে
মাঠ প্রশাসনে বড় পরিবর্তন আসছে

মাঠ প্রশাসনে বড় পরিবর্তন আসছে

http://lokaloy24.com/

শিগগিরই মাঠ প্রশাসনে বড় ধরনের পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে সরকার। ঢাকা, গাজীপুর, সিলেটসহ ১০ থেকে ১২ জেলায় নতুন জেলা প্রশাসক (ডিসি) নিয়োগ দেবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। যারা ডিসি হিসেবে মাঠে তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন করেছেন এবং যুগ্ম-সচিব পদে পদোন্নতি পেয়েছেন তাদেরই তুলে নেওয়া হতে পারে। এ ছাড়া বর্তমান কর্মরত ডিসিদের মধ্যে যারা অদক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন এমন কয়েকজন ডিসিকেও প্রত্যাহার করা হতে পারে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রস্তুত করা ডিসি ফিটলিস্ট থেকে ওই সব জেলায় বিসিএস ২২তম ও ২৪তম ব্যাচের কর্মকর্তাদের ডিসি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হতে পারে। তবে গুরুত্বপূর্ণ কোনো জেলায় বর্তমানে ডিসি হিসেবে দায়িত্ব পালনকারীদের মধ্য থেকে কাউকে কাউকে ঢাকা, গাজীপুর ও সিলেটে ডিসি করা হতে পারে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গতকাল নিজ দফতরে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘নানা প্রক্রিয়া সম্পন্ন শেষে ডিসি পদে নিয়োগ দিতে ইতিমধ্যে ডিসি ফিটলিস্ট তৈরি করা হয়েছে। সেই তালিকা থেকে প্রথম দফায় ১১ জনকে পদায়ন করা হয়েছে। শিগগিরই আরও কিছু কর্মকর্তাকে ডিসি হিসেবে পদায়ন করা হবে। যারা ডিসি হিসেবে মাঠে তিন বছরের বেশি সময় দায়িত্ব পালন করেছেন এবং যুগ্ম-সচিব পদে পদোন্নতি পেয়েছেন তাদের শিগগিরই মাঠ থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে। সেখানে নতুন ফিটলিস্ট থেকে পদায়ন করা হবে।’
কবে নাগাদ এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হতে পারে এমন প্রশ্নে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘খুব বেশি দেরি হবে না। ডিসেম্বরের শেষের দিকে পদায়ন করা হতে পারে।’ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ডিসি হিসেবে নিয়োগ দিতে ইতিমধ্যে বিসিএস ২২ ও ২৪তম ব্যাচের মধ্য থেকে কমবেশি ৬০ জন কর্মকর্তার একটি তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে বিসিএস ২২তম ব্যাচের সাতজন ও ২৪তম ব্যাচের ৫৩ জন কর্মকর্তা রয়েছেন। ৩১ মে সেই তালিকা থেকে ১১ জন কর্মকর্তাকে বিভিন্ন জেলায় ডিসি হিসেবে পদায়ন করা হয়। ওই ১১ জনের মধ্যে তিনজন ছিলেন বিসিএস ২২তম ব্যাচের কর্মকর্তা। বাকি আটজনই ছিলেন বিসিএস ২৪তম ব্যাচের। ফলে বর্তমান ফিটলিস্টে ২২তম ব্যাচের চারজনসহ বাকিরা সবাই বিসিএস ২৪তম ব্যাচের কর্মকর্তা। এদের মধ্য থেকে চলতি মাসের শেষ দিকে ঢাকা, গাজীপুর, সিলেটসহ ১০ থেকে ১২টি জেলায় নতুন ডিসি পদায়ন করা হতে পারে। বাকিদের পর্যায়ক্রমে ডিসি পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, অক্টোবরে পদোন্নতি পেয়ে যুগ্ম-সচিব হয়েছেন যেসব জেলার ডিসি, তাদের প্রত্যাহার করা হবে। এ তালিকায় রয়েছেন চুয়াডাঙ্গার ডিসি মো. নজরুল ইসলাম সরকার, নীলফামারীর ডিসি মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী ও গাজীপুরের ডিসি এস এম তরিকুল ইসলাম। এরা তিনজনই বিসিএস ২০তম ব্যাচের কর্মকর্তা। অন্যদিকে বিসিএস ২১তম ব্যাচের পাঁচজন কর্মকর্তা তিন বছরের বেশি সময় ধরে ডিসি হিসেবে বিভিন্ন জেলায় দায়িত্ব পালন করছেন। তাদেরও প্রত্যাহার করা হতে পারে। এ তালিকায় রয়েছেন ঢাকার ডিসি মো. শহীদুল ইসলাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার হায়াত-উদ-দৌলা খান, পিরোজপুরের আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, সিলেটের এম কাজী এমদাদুল ইসলাম ও গাইবান্ধার ডিসি মো. আবদুল মতিন। এ ছাড়া কমবেশি আড়াই বছর ধরে ডিসির দায়িত্ব পালন করছেন একই ব্যাচের কর্মকর্তা নারায়ণগঞ্জের ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ, ফরিদপুরের অতুল সরকার, রাজবাড়ীর দিলশাদ বেগম, গোপালগঞ্জের শাহিদা সুলতানা, খাগড়াছড়ির প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস, নওগাঁর হারুন-অর-রশীদ, সিরাজগঞ্জের ড. ফারুক আহম্মদ, ঝালকাঠির মো. জোহর আলী, রংপুরের আসিব আহসান ও লালমনিরহাটের আবু জাফর।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ঢাকা, গাজীপুর, সিলেটসহ কয়েকটি জেলার ডিসিকে প্রত্যাহার করে সেখানে নতুন ডিসি পদায়ন করা হবে। ইতিমধ্যে নতুন ডিসিদের ফিটলিস্ট চূড়ান্ত করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। নতুন যাদের নিয়োগ দেওয়া হবে তারা সবাই উপসচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তা। আর যাদের তুলে নেওয়া হবে তাদের বেশির ভাগই তিন বছরের বেশি সময় ডিসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন এবং পদোন্নতি পেয়ে যুগ্ম-সচিব হয়েছেন। এদের কেউ কেউ একই জেলায় আড়াই থেকে তিন বছর ধরে কর্মরত রয়েছেন। সরকারের শীর্ষপর্যায়ের সম্মতি মিললেই এ নিয়োগ দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com