ব্যক্তিস্বার্থে আমার কোনো চাওয়া-পাওয়া নেই: প্রধানমন্ত্রী

ব্যক্তিস্বার্থে আমার কোনো চাওয়া-পাওয়া নেই: প্রধানমন্ত্রী

ব্যক্তিস্বার্থে আমার কোনো চাওয়া-পাওয়া নেই : প্রধানমন্ত্রী
ব্যক্তিস্বার্থে আমার কোনো চাওয়া-পাওয়া নেই : প্রধানমন্ত্রী

লোকালয় ডেস্কঃ গবেষণায় দেশের উন্নতি সম্ভব তা আমরা করে দেখিয়েছি বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘স্বজন হারার বেদনা নিয়ে বাংলাদেশে যখন এসেছি তখন একটাই চিন্তা ছিল জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধামুক্ত-দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলাদেশ নির্মাণ করা। এটাকেই আমি কর্তব্য হিসাবে নিয়েছি। এখানে কোনো ব্যক্তিস্বার্থ ও ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়া নেই। বর্তমান যুগ প্রযুক্তির যুগ, বিজ্ঞানের যুগ, গবেষণার যুগ; সেই গবেষণার মধ্য দিয়ে দেশকে উন্নত করতে পারা সেটাও আমরা প্রমাণ করেছি।’

মঙ্গলবার রাজধানীর ঢাকার প্যান পাসিফিক সোনারগাঁ হোটেলে অনিবাসী প্রকৌশলীদের প্রথম সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ, একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) ও ব্রিজ-টু বাংলাদেশ (বিটুবি) যৌথভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন তো ইন্টারনেট যুগে সকলের সঙ্গে যোগাযোগ আছে। আজকে আমি আনন্দিত, আপনারা প্রবাসীরা বাংলাদেশের কথা চিন্তা করছেন। আমাদের চিন্তার সাথে তাল মিলিয়ে আপনারা কতগুলো প্রস্তাবনা নিয়ে এসেছেন। আসলে বর্তমান যুগটা হচ্ছে প্রযুক্তির যুগ। বিজ্ঞানের যুগ, গবেষণার যুগ। আর সেই গবেষণার মধ্য দিয়ে আমরা পারি দেশকে উন্নত করতে সেটাও আমরা প্রমাণ করেছি।

‘আপনারা যে পলিসি লেভেল চ্যালেঞ্জ ও ইনস্টিটিউশনাল লেভেল চ্যালেঞ্জগুলো চিহ্নিত করেছেন। এই চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করে সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি উদ্ভাবনের মাধ্যমে দেশকে আরও সমৃদ্ধশালী, উন্নত করা যায় সেটা আপনারা দেখবেন।’

শিকড়ের সন্ধানে আজ আপনারা এসেছেন। সেজন্য আমি আপনাদের স্বাগত জানিয়ে এইটুকু বলবো, আপনাদের যেকোনো উদ্যোগ বাংলাদেশের উন্নয়নকে আরও ত্বরান্বিত করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

২০৭১ সালে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠার শতবার্ষিকী উদযাপন করবো। ২০২০ সালে জাতির পিতা জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করবো। তিনি আমাদের স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। এই বাংলাদেশ একটা ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হবে, এটা আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। হয়ত আমরা থাকবো না। কিন্তু প্রজন্মের পর প্রজন্ম আসবে তারা একটা সুন্দর সমাজ পাবে, সুন্দর দেশ পাবে, সুন্দরভাবে বাঁচতে পারবে এবং উন্নত জীবন পাবে। আমাদের যে মেধা সেই মেধা বিকাশের সুযোগ পাবে।

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের প্রধান উপদেষ্টা জাতীয় অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী। সূচনা বক্তব্য দেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মনোয়ার আহমেদ। এছাড়াও, বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের কনভেনর ব্রিজ-টু-বাংলাদেশের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আজাদুল হক।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com