বাহুবলে কোম্পানির ভাড়াটে লাঠিয়ালদের অপতৎপরতায় তীব্র উত্তেজনা

বাহুবলে কোম্পানির ভাড়াটে লাঠিয়ালদের অপতৎপরতায় তীব্র উত্তেজনা

বাহুবল (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি।। হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার বিহারীপুর এলাকায় কোম্পানির মধ্যস্বত্তভোগী লাঠিয়াল সিন্ডিকেট ও এলাকাবাসির মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। ১৪ জুন সোমবার সকাল থেকে কয়েক ঘন্টা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় নারী শিশুসহ ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে বাহুবল থানা ও কামাইছড়া ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চরম উত্তেজনা বিরাজ করছিল। এ নিয়ে যে কোন সময় আবারো রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।

পুলিশ স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাহুবল উপজেলার বিহারীপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের স্ত্রী চন্ডী আক্তার ওরফে সুফিয়া খাতুনের ১০ শতক ভূমি জবর দখলের পায়তারা করছিল স্থানীয় ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে মধ্যস্বত্তভোগী একটি সিন্ডিকেট। তারা দরিদ্র সুফিয়ার একমাত্র সম্বল ওই ভূমিটিকে ‘ইউরোনীট স্পীন কম্পোজিট লিঃ’ নামের একটি কোম্পানির কাছে তুলে দিতে চায়।

এ নিয়ে সুফিয়া খাতুনের সাথে কয়েক বছর ধরে কোম্পানীর মধ্যস্বত্ত্বভোগী সিন্ডিকেটের বিরোধ চলছিল। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার সকালে দলবল নিয়ে ওই ভূমিতে কোম্পানির বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণের চেষ্টা করে সিন্ডিকেটের লোকজন। এতে সুফিয়া খাতুনসহ এলাকাবাসি বাধা দিলে উভয় পক্ষে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। সকাল ৯ টা থেকে থেমে থেমে কয়েক ঘন্টার ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় সুফিয়া খাতুন (৫৫), তার পুত্র রাকিব (১২) ও হৃদয় (১০)সহ অন্তত ১০ জন আহত হয়। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে বাহুবল নবীগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আবুল খায়ের, থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
এনিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। বাহুবল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুজ্জামান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com