প্রিজনভ্যানে হামলার গঠনার মামলার আসামি গয়েশ্বর

প্রিজনভ্যানে হামলার গঠনার মামলার আসামি গয়েশ্বর

লোকালয় খবর : খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা দেওয়াকে কেন্দ্র করে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করেছে পুলিশ। এর মধ্যে রাজধানীর শাহবাগ থানায় দুটি এবং রমনা থানায় একটি মামলা হয়েছে।

মামলাগুলোতে পুলিশের প্রিজনভ্যানে হামলা করে আসামি ছিনতাই, সরকারি সম্পদের ক্ষতি সাধন এবং পুলিশ হত্যাচেষ্টার অভিযোগে আনা হয়েছে। এই মামলায় আসামি করা হয়েছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কেও।

তাকে সাদা পোশাকের পুলিশ আটক করেছে বলে দল ও পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। তবে এখনো পুলিশ আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করেনি।

গয়েশ্বর ছাড়াও এসব মামলায় ৬৯ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের রিমান্ডের আবেদন জানাবে পুলিশ। আজই তাদের আদালতে তোলা হবে।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ অনেকের বিরুদ্ধেই মামলা হয়েছে। এই মামলায় আজ দুপুরে আসামিদের সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানো হবে।

তবে বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বর্তমানে কোথায় রয়েছেন সে ব্যাপারে কোনো তথ্য তার জানা নেই বলে দাবি করেন ওসি।

রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মঈনুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার রাতে তার থানায় একটি মামলা হয়েছে বিশেষ ক্ষমতা আইনে।

মঙ্গলবার বিকালে হামলার ঘটনার পর রাত ১০টার দিকে গুলশান পুলিশ প্লাজার সামনে থেকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে আটক করে পুলিশ।

গভীর রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, তাদের স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলামের ছেলে এবং দলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিতকেও শান্তিনগরের বাসা থেকে পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে। স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর বাসায় রাতে তল্লাশি চালানো হয়েছে বলেও জানান রিজভী।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলায় রায়ের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণের পর দলের নেতাকর্মীদের রাজপথে সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন গয়েশ্বর। খালেদা জিয়ার সাজার রায় হলে সরকার পতনের আন্দোলনের হুমকিও দিয়েছিলেন বিএনপির এই নেতা।

জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় হাজিরা দিয়ে মঙ্গলবার বিকালে খালেদা জিয়া গুলশানের বাসায় ফেরার পথে হাইকোর্ট এলাকায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় বিএনপিকর্মীরা। ওই ঘটনায় বিএনপিকর্মীদের বেধড়ক পিটুনির শিকার হন কয়েকজন পুলিশ সদস্য, ভাঙচুর হয় তাদের গাড়ি ও আগ্নেয়াস্ত্র।

ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার মারুফ হোসেন বলেন, প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে বিএনপিকর্মীরা পুলিশের হাতে আটক দুই নেতাকে ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় তিনটি মামলা হয়েছে। এর চেয়ে বেশি কোনো তথ্য আমার কাছে নেই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com