প্রধানমন্ত্রীকে ‘ভালোবাসার নৌকা’ উপহার দিতে চান রংপুরের রবিউল

প্রধানমন্ত্রীকে ‘ভালোবাসার নৌকা’ উপহার দিতে চান রংপুরের রবিউল

প্রধানমন্ত্রীকে ‘ভালোবাসার নৌকা’ উপহার দিতে চান রংপুরের রবিউল
প্রধানমন্ত্রীকে ‘ভালোবাসার নৌকা’ উপহার দিতে চান রংপুরের রবিউল

পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভক্ত রবিউল ইসলাম। পেশায় রিপিয়ারিং ওয়ার্কশপের মিস্ত্রি। নৌকা মার্কার সমর্থক হিসেবে তার রয়েছে ব্যাপক পরিচিতি।

চার মাস ধরে প্রায় দেড় লাখ ব্যয়ে নিজেই রিপিয়ারিং ওয়ার্কশপে দিনরাত পরিশ্রম করে তৈরি করেছেন ব্যতিক্রম এই নৌকা। তার তৈরী এই নৌকা নদীতে ভাসবে না। কারণ ব্যাটারি ও চার্জার সংযুক্ত এই নৌকা চলবে উন্নয়নের মহাসড়কে। তবে নৌকাকে শুধু নৌকা বলতে নারাজ রবিউল। এর নাম তিনি দিয়েছেন ‘ভালোবাসার নৌকা’। যা তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চান।

জানা গেছে, রংপুরের পীরগাছা উপজেলার পারুল হাউদারপাড়া গুনজোরখাঁ গ্রামের মৃত হাফিজুল ইসলাম ছেলে রবিউল ইসলাম। তিন ভাই-বোনের সে পরিবারের দ্বিতীয় সন্তান। তার পরিবারে সাত বছরের এক প্রতিবন্ধী ছেলে সন্তান রয়েছে। এক বোন ও দুই ভাইয়ের সবাই বিয়ে করেছেন। এখন ২ শতাংশ জমিতে বিধবা মা, স্ত্রী ও সন্তান ও ছোট ভাইয়ের পরিবার নিয়ে একত্রে বসবাস করছে।

পিতাহীন রবিউলের অভাব অনটনের সংসার চলে রিপিয়ারিং ওয়াকশপে কাজ করে। বাড়ি থেকে নিকটস্থ বাজারে ছোট্ট পরিসরে নিজের নামে গড়ে তুলেছেন রবিউল রিপিয়ারিং ওয়ার্কশপ। সেখানে দিনরাত কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। এই ব্যস্ততার ফাঁকেই তার মনের দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন পূরণে জুন মাসে শুরু করেন নৌকা তৈরির কাজ। নিজের ঘাম ঝড়ানো পরিশ্রমের টাকার সাথে সমিতি থেকে নেয়া ঋণের টাকায় চার মাসের মাথায় শেষ হয় ভালোবাসার নৌকা তৈরির কাজ।

রবিউলের হাতে গড়া নৌকাটি ব্যাটারি চালিত। এই নৌকাতে বৈঠা নেই। নেই পাল তোলা। বাঁশ-কাঠের কোন ব্যবহারও হয়নি। সম্পূর্ণ রড, স্টিল ও টিন দিয়ে তৈরি করা নৌকাটি প্রতিদিন ১০-১২ ঘন্টা চার্জ করলে ১২০ কিলোমিটার চালানো সম্ভব। কিন্তু রবিউল নৌকাটি ভাড়ায় চালানো কিংবা উপার্জনের জন্য তৈরি করেন নি। নৌকা মার্কার সমর্থক হিসেবে তার তৈরি করা ভালোবাসার নৌকাটি তিনি প্রধানমন্ত্রীর জন্য তৈরি করেছেন। এখন ব্যতিক্রমি এই নৌকা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চান। এরজন্য স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাসহ সংবাদ কর্মীদের কাছে পাগলের মত যোগাযোগ শুরু করেছেন।

এ বিষয়ে কথা হলে রবিউল ইসলাম বলেন, আমি মুর্খ্য মানুষ। বেশীদুর পড়ালেখা কইরবার পারি নাই। ছোটবেলা থেকে নৌকা মার্কা ভালো লাগে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি মনোত আলাদা একটা মহব্বত কাজ করে। অনেক কষ্ট করি দেড় লাখ টাকা খরচ করি নিজ হাতে এই নৌকা তৈরি করছি। এটা দিয়্যা ব্যবসা কইরবার নাই।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে মোর ভালোবাসার নৌকা উপহার দিম। যদি প্রধানমন্ত্রী নৌকাত চড়ে মোর জীবন স্বার্থক হইবে। এটায় মোর ভালোবাসা। এটা হইলে মুই শান্তি পাইম। কিন্তু কায় মোক ভালোবাসার নৌকাসহ প্রধানমন্ত্রীর কাছে পৌঁছে দিবে। কত নেতাকে তো কনু। মুই গরীব দেখি সবাই খালি হাসে। ইচ্ছে প্রধানমন্ত্রীকে ভালোবাসার নৌকাটি উপহার হিসেবে পৌঁছে দেয়ার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com