প্রথম আলোর সম্পাদকের বিষয়ে সরকারের মধ্যে আলোচনা হয়নি: ওবায়দুল কাদের

প্রথম আলোর সম্পাদকের বিষয়ে সরকারের মধ্যে আলোচনা হয়নি: ওবায়দুল কাদের

প্রথম আলোর সম্পাদকের বিষয়ে সরকারের মধ্যে আলোচনা হয়নি: ওবায়দুল কাদের
প্রথম আলোর সম্পাদকের বিষয়ে সরকারের মধ্যে আলোচনা হয়নি: ওবায়দুল কাদের

দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারিসহ জামিন হওয়ার পুরো প্রক্রিয়াটি আইনিভাবেই হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘প্রথম আলোর সম্পাদকের গ্রেফতারি পরোয়ানার বিষয়ে সরকারের মধ্যে কোনও আলোচনা হয়নি। সরকার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেনি, করেছেন আদালত। পুরো বিষয়টি আদালতের নির্দেশনায় হয়েছে। আর সরকার তো আদালতকে নির্দেশ দিতে পারে না।’

সোমবার (২০ জানুয়ারি) মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের দাবি করেন, ‘একটি ঘটনা ঘটেছে, ঘটনার প্রেক্ষিতে মামলা হয়েছে, মামলার পর গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে, পরে আসামিরা জামিন নিয়েছেন। সবই তো আদালতের বিষয়।’

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, দেশের বিভিন্নস্থানের দুই লেনের সড়কগুলোর উন্নয়নে সরকার কাজ করছে। এরই অংশ হিসেবে বিভিন্ন সড়ককে চার লেনে উন্নীত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর বিকালে রেসিডেনসিয়াল কলেজ ক্যাম্পাসে একটি অনুষ্ঠান চলাকালে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায় নাঈমুল আবরার। ঘটনার পরদিন আবরারের বাবা মজিবুর রহমান মোহাম্মদপুর থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা এবং ৬ নভেম্বর অবহেলাজনিত কারণ উল্লেখ করে ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম আমিনুল হকের আদালতে আরও একটি মামলা করেন। ১৬ জানুয়ারি মোহাম্মদপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আব্দুল আলীম ১০ জনকে আসামি করে প্রতিবেদন দাখিল করেন। পরে ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান ও সহযোগী সম্পাদক আনিসুল হকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আবেদন জানালে সোমবার প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানকে চার সপ্তাহের জামিন দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এ মামলায় পুলিশ প্রতিবেদন না হওয়া পর্যন্ত আনিসুল হক, শাহ পরান তুষার, মহিতুল আলম পাভেল, শুভাশিষ প্রামাণিক শুভ ও কবির বকুলকে কোনোরকম গ্রেফতার বা হয়রানি না করারও নির্দেশ দেন আদালত। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ জামিন আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com