প্রতিবেশীর কুকুর রেঁধে মালিককেই দাওয়াত!

প্রতিবেশীর কুকুর রেঁধে মালিককেই দাওয়াত!

প্রতিবেশীর কুকুর রেঁধে মালিককেই দাওয়াত!
প্রতিবেশীর কুকুর রেঁধে মালিককেই দাওয়াত!

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ দক্ষিণ কোরিয়ায় এক কৃষক প্রতিবেশীর পোষা কুকুর মেরে প্রতিবেশীকেই দাওয়াত দিয়ে খাওয়ান। কুকুরের ‘অসহ্য’ চিৎকারের জন্যই তিনি এ কাজ করেন। খবর: আরব নিউজ

স্থানীয় সময় বুধবার পুলিশের কাছে দেওয়া জবানবন্দিতে ওই কৃষক জানান, কুকুরটির ঘেউ ঘেউ শব্দে খুবই বিরক্ত ছিলেন তিনি। পরে সহ্য না করতে পেরে গতকাল কুকুরটি লক্ষ্য করে একটি পাথর ছুড়ে মারেন। এতে সেটি অচেতন হয়ে পড়ে।

ঘটনার তদন্তকারী এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার খালিজ টাইমস জানায়, শ্বাসরোধ করে কুকুরটিকে হত্যার পর মাংস রান্না করেন ঐ কৃষক। পরে কুকুরটির মালিককে তিনি রাতের খাবারে নিমন্ত্রণ জানান।

পোষা কুকুরটির মালিকের মেয়ে পুলিশকে জানায়, শহরের প্রতিটি জায়গায় কুকুরটি খুঁজেছেন তারা। এমনকি সেটিকে খুঁজে দিতে পারলে ১০ লাখ (দক্ষিণ কোরিয়ার মূদ্রা) ওন পুরষ্কারের ঘোষণাও দেওয়া হয়।

এ সময় অভিযুক্ত কৃষকের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘কুকুরটি খুঁজতে আমি তার বাসায় গেলে, তিনি খুব সহানুভূতি জানান। এমনকি কুকুরটিকে খুঁজে পেলে আমাকে জানাবেন বলে আশাবাদও দেন। আমার বিশ্বাস কুকুরটিকে তিনি তখন লুকিয়ে রেখেছিলেন।’

ঘটনার বর্ণনা দিতে যেয়ে মেয়েটি বলেন, ‘ওই দিনই বাসায় বাবার এক বন্ধু আসেন। তিনি বাবার সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন, পাশের বাসার ওই কৃষক কুকুরের মাংস খেতে বাবাকে আমন্ত্রণ করেছে। তবে বাবা আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করলে ওই কৃষক রান্না করা কুকুরের মাংস নিয়ে আমাদের বাড়িতে আসেন। এ সময় বাবার বন্ধু তাকে জেরা করলে তিনি হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেন।’

দক্ষিণ কোরিয়ায় অন্যতম একটি পছন্দের খাবার হচ্ছে কুকুরের মাংস। তবে বর্তমানে বেশ কয়েকটি শহরে কুকুরের মাংস নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com