পরিবেশবান্ধব উন্নয়নে সকল পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আন্তরিক থাকতে হবে: এমপি আবু জাহির

পরিবেশবান্ধব উন্নয়নে সকল পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আন্তরিক থাকতে হবে: এমপি আবু জাহির

পরিবেশ বান্ধব উন্নয়নে সকল পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আন্তরিক থাকতে হবে: এমপি আবু জাহির
পরিবেশ বান্ধব উন্নয়নে সকল পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আন্তরিক থাকতে হবে: এমপি আবু জাহির

স্টাফ রিপোর্টার: হবিগঞ্জ জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মোঃ আবু জাহির এমপি বলেছেন, বিশে^ উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ। একইভাবে হবিগঞ্জও সারাদেশে একটি আলোকিত জেলায় পরিণত হয়েছে। এখানে রয়েছে ব্যাপক প্রাকৃতিক সম্পদ। আমাদের জেলার গ্যাস, বিদ্যুৎ, খাদ্য শস্য ও মৎস্য সম্পদ স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে জাতীয়ভাবে যুক্ত হচ্ছে। গড়ে উঠেছে শিল্প এলাকা। তবে শিল্পবর্জ্যে যাতে পরিবেশের ক্ষতি না হয় সে ব্যাপারে উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন। পরিবেশ বান্ধব উন্নয়নে সকল পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, দেশের অন্যান্য জেলার তুলনায় হবিগঞ্জের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেক ভাল। এই এলাকাকে আরো এগিয়ে নিতে অপরাধ নির্মুলে প্রশাসনকে কঠোর ভূমিকায় থাকতে হবে। বিশেষ করে মাদক নির্মুলে জিরো টলারেন্সে থাকা প্রয়োজন। সরকারি দলের কোনও লোকও যদি মাদকের সাথে সম্পৃক্ত থাকে, তাদেরকেও ছাড় দেয়া যাবে না।
রবিবার সকালে হবিগঞ্জ জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন। এমপি আবু জাহির আরো বলেন, প্রতিটি উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা নিয়মিত অনুষ্ঠিত করতে হবে। তাহলে অনেক ছোট সমস্যাগুলো স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং প্রশাসনের সমন্বয়েই সমাধান করা সম্ভব। জাতীয় সংসদ এবং গেল উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অত্যন্ত অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। একটি মহল বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টায় থাকলেও তা করতে পারেনি। বিশেষ করে আসন্ন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে কেউ যাতে কালো টাকা ছড়াতে না পারে সে ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।
এমপি আবু জাহির বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। অনেক সময় সামান্য ব্যর্থতার কারণে বড় ধরণের অর্জন ম্লান হয়ে যায়। সেই ক্ষেত্রে সরকারি কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে সুপরিকল্পনার মাধ্যমে উন্নয়ন কাজ পরিচালিত করতে হবে। তাহলেই কাক্সিক্ষত উন্নয়ন সম্পাদন করা সম্ভব। দেড়শ’ কোটি টাকায় হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কের নির্মাণ কাজ চলছে। বলভদ্র সেতুর উপর ব্রীজ নির্মাণ করে দিয়েছি। পুরো সিলেট বিভাগের মানুষ এই রাস্তা ব্যবহার করবে। উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থাকে কাজে লাগিয়ে মাদক ব্যবসায়ীরাও এদিকে তৎপর হতে পারে। সে ব্যাপারেও প্রশাসনকে কঠোর নজরধারী রাখতে হবে। এছাড়া সারাদেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ এই রাস্তা দিয়ে যাথায়াত করবেন। তাদের নিরাপদ চলাচল নিশ্চিত করা প্রয়োজন। সভায় শহরের যানজট নিরসনে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ, ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে ধারণা দেয়া, আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের সামনে অবৈধ স্থাপনা এবং বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স যাতে না থাকে সে ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের তাগিদ দেন তিনি।
হবিগঞ্জের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল কবীর মুরাদের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মাঝে জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি, গাজী মোহাম্মদ শাহ নেওয়াজ মিলাদ এমপি, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, সিভিল সার্জন ডাঃ সুচীন্ত চৌধুরী, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্ণেল এম জাহিদুর রশিদ, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুরী, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাচ্ছিরুল ইসলাম, চুনারুঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির লস্কর, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, আজমিরীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মর্তুজা হাসান, বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী, বাহুবল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমানসহ পুলিশ প্রশাসন, জেলা প্রশাসনসহ সরকারি বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।
সভায় পুরো জেলার আইন-শৃঙ্খলার উন্নয়নের স্বার্থে নানা সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com