উলিপুরে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা; ১ লাখে মীমাংসা

উলিপুরে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা; ১ লাখে মীমাংসা

খালেক পারভেজ লালু, উলিপুর (কুড়িগ্রাম): কুড়িগ্রামের উলিপুরে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টার ঘটনা ১ লাখ টাকায় মীমাংসা করে দিলেন অভিযুক্ত শিক্ষকের পিতা। ঘটনার ৭ দিন অতিবাহিত হলেও লম্পট ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় এলাকায় অভিভাবক মহলে চরম ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানা গেছে উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের নাগদাহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শাহ আলম মুকুল ঘটনার দিন ২৯ মার্চ বিদ্যালয় চলাকালিন সময় একটি কক্ষে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়।

এ সময় ওই শিশুটির চিৎকারে মাঠে ও অন্য কক্ষে থাকা শিশু শিক্ষার্থীরা ও জনৈক শিক্ষক ছুটে আসলে ঘটনা বেগতিক দেখে ওই শিক্ষক সটকে পড়েন। ওই লম্পট শিক্ষক শুধু এ ঘটনায় নয় ইতিপূর্বে আরও এ ধরনের দুটি অপকর্ম করেছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে লম্পট শিক্ষক শাহ আলমের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলে, সামান্য হালকা কিছু হয়েছে। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে আমার বাবা আঃ ছাত্তার, এসএমসি সদস্য আরজিনার স্বামী সাইদুর রহমান ও আমি রাতে ময়নার বাবা আবুল কাসেম মংলার সাথে ১ লাখ টাকায় মীমাংসা করি।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাহফুজার রহমান বলেন,অভিযোগ সত্য হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অপরদিকে প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেক জানান, ঘটনার সময় তিনি বিদ্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন না, তবে ঘটনাটি দুঃখজনক।

এ দিকে ঘটনার ৭ দিন অতিবাহিত হলেও প্রশাসনিক ভাবে কেন পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়নি, এ প্রশ্নের উত্তরে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নজরুল ইসলাম জানান আমি দেরীতে বিষয়টি জানতে পেয়েছি, ঘটনাস্থলে সহকারী শিক্ষা অফিসারকে তদন্তের জন্য পাঠিয়েছি, ঘটনা সত্য হলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com