দুই বউ, বেশি বেতন চান ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট

দুই বউ, বেশি বেতন চান ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট

অনলাইন ডেস্ক: সব সময় সংবাদমাধ্যমে আলোচনায় থাকা ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে এবার নিজের বেতন বাড়ানোর কথা বললেন। কারণ, দুই বউয়ের ভরণপোষণ দিতে তিনি নাকি হিমশিম খাচ্ছেন। আর এ ব্যাপারে খুবই খোলামেলাভাবে সরাসরি নিজের বেতন বাড়ানোর দাবি করে বসলেন দুর্তাতে।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে বলেন, বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী তাঁর বেতন একেবারেই চলার মতো নয়। বেতনে খাবার জন্য আলাদা টাকাও দেওয়া হয় না। বিতর্কিত বক্তব্যর জন্য প্রায় সময়ে আলোচনায় থাকা দুতার্তে বলেন, ‘আমি কত বেতন পাই আপনারা সবই জানেন। আমার ঘরে দুজন স্ত্রী। মাত্র ৩ হাজার ৮৬০ ডলার আয়ে সংসার আর চলে না। যদি প্রেসিডেন্ট হিসেবে সংসার চালানোর মতো বেতন পেতে হয় তাহলে আমাকে প্রতি মাসে ১০ লাখ ফিলিপাইনের পেসো দিতে হবে।’ তবে শেষের কথাটি রসিকতার সুরে বলেন ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে ফিলিপাইনের সাবেক প্রেসিডেন্ট বেনিগনো অ্যাকুইনো একটি নির্দেশিকায় সাক্ষর করে দেশের চাকরিজীবী ও সামরিক বাহিনীর কর্মীদের বেতন বাড়িয়েছেন। বর্তমান ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের বেতন আগামী বছর থেকে বাড়ানো হচ্ছে। তখন মাসিক বেতন হবে ৭ হাজার ৭১৪ ডলার। এর আগেই বেতন নিয়ে মন্তব্য করলেন রদ্রিগো।

ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে তাঁর প্রথম স্ত্রীর জন্য বেশ চাপে আছেন। ১৯৯৮ সালে তাঁর বিরুদ্ধে ভরণপোষণের দাবি করেন তাঁর প্রথম স্ত্রী এলিজাবেথ জিমারম্যান। ২০০০ সাল থেকে জিমারম্যানকে ভরণপোষণের অর্থ দিতে হচ্ছে তাকে। ওই অর্থ দিতেই বেতনের অনেকটা খরচ হয়ে যায় দুর্তাতের। এ জন্যই বোধ হয় রসিকতা করে বেতন বাড়ানোর কথা বলছেন প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো। তার বর্তমান স্ত্রী হ্যানিলেট অ্যাভেনসিনা। তথ্যসূত্র: ইনকিউরার ডট নেট ও দ্য স্টার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com