দীর্ঘ ২৮ বছর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোট গ্রহণ শুরু

দীর্ঘ ২৮ বছর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোট গ্রহণ শুরু

দীর্ঘ ২৮ বছর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোট গ্রহণ শুরু
দীর্ঘ ২৮ বছর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোট গ্রহণ শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট: আজকের এই দিনটির জন্য দীর্ঘ ২৮ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের। ফলে আনন্দ উৎসাহের কোন কমতি নেই সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের মাঝে। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে যারা পড়াশোনা করেন তাদের কাছে আজকের দিনটি যেমন গুরুত্বের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও ডাকসু নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে ফলফল জানতে।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে সোমবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে একটানা দুপুর ২টা পর্যন্ত।  এ নির্বাচনে মোট ভোটার ৪৩ হাজার ২৫৬ জন। ডাকসুতে ২৫টি পদের জন্য লড়ছেন ২২৯ প্রার্থী। আর ১৮টি হল সংসদে ২৩৪টি পদের বিপরীতে প্রার্থী ৫০৯ জন।

ডাকসুতে প্যানেল দিয়ে নির্বাচন করছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল, বাম সংগঠনগুলোর জোট, কোটা আন্দোলনকারীদের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ, স্বতন্ত্র জোট, জাসদ ছাত্রলীগ, ছাত্রলীগ-বিসিএল, ছাত্র মৈত্রী, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন, ছাত্র মুক্তিজোট, জাতীয় ছাত্রসমাজ ও বাংলাদেশ ছাত্র আন্দোলন। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীও রয়েছেন।

চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকায় সহ-সভাপতি (ভিপি) পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২১জন; তাদের সঙ্গে এই নির্বাচনে ১৪ জন লড়বেন সাধারণ সম্পাদক (জিএস) এবং ১৩ জন সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে।

১২টি প্যানেলের বাইরে ভিপি পদে ৯ জন এবং জিএস পদে ২ জন স্বতন্ত্র হিসাবে নির্বাচনে লড়বেন। কেন্দ্রীয় ডাকসুতে পূর্ণাঙ্গ প্যানেল দিয়েছে ছাত্রলীগ, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল, বাম সংগঠনগুলোর জোট, কোটা আন্দোলনকারীদের বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ, স্বতন্ত্র জোট, জাসদ ছাত্রলীগ, ছাত্রলীগ-বিসিএল, ছাত্র মৈত্রী, ইশা ছাত্র আন্দোলন, সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট ও ছাত্র সমাজ।

ছাত্রলীগ থেকে ডাকসুর সহ-সভাপতি (ভিপি) পদে সংগঠনের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী এবং সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। অন্যদিকে ভিপি পদে সংগঠনের সলিমুল্লাহ মুসলিম হল শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমান, জিএস পদে জহুরুল হক হল শাখার যুগ্ম-আহবায়ক আনিসুর রহমান খন্দকার অনিক এবং এজিএস পদে বঙ্গবন্ধু হল শাখার যুগ্ম-আহ্বায়ক খোরশেদ আলম সোহেলকে মনোনয়ন দিয়েছে ছাত্রদল।

বাম ছাত্র সংগঠনগুলোর দুই মোর্চা প্রগতিশীল ছাত্রজোট ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী ছাত্রঐক্যের ১১টি সংগঠন মিলে একটি প্যানেল দিয়েছে। তাদের প্যানেলে ভিপি প্রার্থী হচ্ছেন ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী। জিএস প্রার্থী হচ্ছেন ছাত্র ফেডারেশনের একাংশের ফয়সাল মাহমুদ সুমন এবং এজিএস প্রার্থী হচ্ছেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের একাংশের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সভাপতি সাদেকুল ইসলাম সাদিক।

গত কয়েকদিন এই নির্বাচনকে কেন্দ্রকরে বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্য এক পরিবেশ বিরাজ করে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আনন্দের কোন কমতি ছিল না। তারই ধারাবাহিকতায় আজ সকাল থেকেই ভোট প্রদান করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা প্রস্তুত ছিল। আর তাই ভোট দিতে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়েছে ছাত্ররা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com