তীব্র আন্দোলনের মুখে মন্ত্রিসভা ভেঙে দিলেন চিলির প্রেসিডেন্ট

তীব্র আন্দোলনের মুখে মন্ত্রিসভা ভেঙে দিলেন চিলির প্রেসিডেন্ট

তীব্র আন্দোলনের মুখে মন্ত্রিসভা ভেঙে দিলেন চিলির প্রেসিডেন্ট
তীব্র আন্দোলনের মুখে মন্ত্রিসভা ভেঙে দিলেন চিলির প্রেসিডেন্ট

দশ লাখ মানুষের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের পর চিলির মন্ত্রিসভা ভেঙে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা। বিক্ষোভকারীদের দাবি মেনে নিয়ে অর্থনৈতিক ও সামাজিক সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিলেন তিনি। শুক্রবার চিলির রাজধানীতে ১০ লাখের বেশি মানুষের বিক্ষোভের পর পিনেরা বলেন, আমি রাস্তা থেকে জনগণের দাবি শুনেছি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

লাতিন আমেরিকার সম্পদশালী দেশগুলোর অন্যতম চিলি। তবে দেশটিতে ধনবৈষম্য প্রকট আকার ধারণ করেছে। রাজধানী সান্তিয়াগোতে ক্রমাগত বাড়ছে জীবনযাপনের ব্যয়। সে কারণেই জোরালো হয়েছে অর্থনৈতিক সংস্কারের দাবি। প্রথমে মেট্রোর ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ শুরু হয়। পরে ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হলেও বিক্ষোভ থামেনি। বরং তা আরও ছড়িয়ে পড়েছে। গত শুক্রবার সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ করে তারা। ওই শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে ১০ লাখের অধিক লোক অংশ নেয়।

প্রেসিডেন্ট পিনেরা বলেছেন, ‘নতুন দাবি বাস্তবায়ন করতে আমি আমার মন্ত্রিসভা ভেঙে পুনর্গঠনের সিদ্ধান্ত  নিয়েছি। আমাদের সামনে নতুন বাস্তবতা। এক সপ্তাহ আগে যে চিলি ছিল, এখন আর তেমন নেই।’

এর আগে প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, বিভিন্ন শহরে যে কারফিউ জারি করা হয়েছিল সেটিও তুলে নেওয়া হয়েছে।

১৯৯০ সালে একনায়ক আগুস্তে পিনোশের ক্ষমতা শেষে চিলিতে গণতন্ত্র ফিরে আসার পর এবারই প্রথম সান্তিয়াগোর রাজপথে এটাই বড় বিক্ষোভ। এ বিক্ষোভে চিলির মোট জনগণের ৫ শতাংশ হাজির হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। বিক্ষোভ দমন করতে পুলিশের গুলিতে ১৭ জন মানুষ নিহত হয়েছেন। আহত হন শতশত।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com