ঢাকা ও কুমিল্লায় শুধু নৌকার প্রার্থী, সিলেটে লড়ছেন চারজন

ঢাকা ও কুমিল্লায় শুধু নৌকার প্রার্থী, সিলেটে লড়ছেন চারজন

http://lokaloy24.com
http://lokaloy24.com

লোকালয় ডেস্ক:ভোটের আগেই ঢাকা-১৪ ও কুমিল্লা-৫ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত দুই প্রার্থী বিজয়ের পথে রয়েছেন। আর কোনো প্রার্থী না থাকায় বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে দুই প্রার্থীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

এই তিন আসনে আগামী ২৮ জুলাই ভোট হওয়ার কথা ছিল।

ঢাকা-১৪ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আগা খান মিন্টু ছাড়া বাকি তিনজন প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এই নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহজালাল জানিয়েছেন, চার প্রার্থীর মধ্যে বৈধ তিন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। তাই আগা খান মিন্টু বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবেন। করোনা সংক্রমণের কারণ দেখিয়ে জাতীয় পার্টির মোস্তাকুর রহমান, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ফ্রন্ট-বিএনএফের কেওয়াইএম কামরুল ইসলাম ও জাসদের আবু হানিফ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য আসলামুল হকের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

কুমিল্লা-৫ আসনে উপনির্বাচনে মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ে আওয়ামী লীগের আবুল হাশেম খান ও জাপার জসিম উদ্দিন বৈধ প্রার্থী হিসেবে টিকে ছিলেন। কিন্তু রোববার বিকেলেই জাপার প্রার্থী জসিম উদ্দিন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে হাজির হয়ে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের আবেদন জমা দেন। জসিম প্রার্থিতা প্রত্যাহারের আবেদন করায় হাশেম খান একাই প্রার্থী হিসেবে টিকে থাকলেন। রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, তারা জাপার প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন পেয়েছেন। যাচাই করে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন। সাবেক আইনমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরুর মৃত্যুতে এ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

এ ছাড়া সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের প্রার্থিতা চ্যালেঞ্জ করে ইসিতে দাখিল করা আবেদন খারিজ হয়ে গেছে। ফলে এই আসনে চারজনের প্রার্থিতাই টিকে থাকল। গত রোববার প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবরে জাতীয় পার্টির প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিক অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী যুক্তরাজ্যের নাগরিক। দ্বৈত নাগরিক হিসেবে তিনি বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন না। তবে আতিকের অভিযোগ অস্বীকার করে হাবিবুর রহমান দাবি করেছেন, তিনি অনেক আগেই ব্রিটিশ নাগরিকত্ব ত্যাগ করেছেন। তিনি প্রয়োজনে উচ্চ আদালতের আশ্রয় নেবেন বলেও ঘোষণা দেন।

এ ছাড়া এই আসনে আরও দুই প্রার্থী হলেন বাংলাদেশ কংগ্রেসের জুনায়েদ মোহাম্মদ মিয়া এবং বিএনপির বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক এমপি শফি আহমদ চৌধুরী।

করোনা আক্রান্ত হয়ে সিলেট-৩ আসনের এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েসের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

ইসি ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এই তিন আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল ১৫ জুন। মনোনয়নপত্র যাচাই ও বাছাই করা হয়েছে ১৭ জুন। আর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল বুধবার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com