ট্রাম্পের রক্তচক্ষু উপেক্ষা, তুরস্কে ১৫ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে কাতার

ট্রাম্পের রক্তচক্ষু উপেক্ষা, তুরস্কে ১৫ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে কাতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সন্ত্রাসীদের সহযোগিতার অভিযোগে তুরস্কে গ্রেপ্তার মার্কিন যাজককে বিনাবিচারে ছেড়ে না দেয়ায় দেশটির বিরুদ্ধে একের পর এক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এরই মধ্যে ‘তুরস্কের ভাইদের’ পাশে দাঁড়াতে দেশটিতে সরাসরি ১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে কাতার।

তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠকের পর বুধবার এ ঘোষণা দেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি। তুরস্কের পুঁজিবাজার এবং ব্যাংকে এই বিনিয়োগ করা হবে বলে জানান তিনি। খবর: আলজাজিরা।

তুরস্কের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত পিকেকে সন্ত্রাসীদের সহযোগিতার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের ইভানজেলিকাল খ্রিস্টান যাজক এন্ড্রু ব্রানসনকে দুই বছর আগে গ্রেপ্তার করে দেশটি। তাকে বিনাবিচারে ছেড়ে না দেয়ার দাবি জানান ট্রাম্প।

কিন্তু তুরস্ক এতে রাজি না হওয়ায় দেশটি থেকে আমদানি করা স্টিল এবং এলুমিনিয়ামের ওপর দ্বিগুণ শুল্ক আরোপ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এতে তুর্কি মুদ্রা লিরার ব্যাপক দরপতন হয় এবং দেশটির আর্থিক খাত অস্থিতিশীল হয়ে উঠে।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কের এই টানাপোড়েনের মধ্যেই তুরস্ক সফরে যান কাতারের আমির। গত সপ্তাহ থেকে শুরু হওয়া তুরস্কের এই সংকটে তিনিই কোনো রাষ্ট্রপ্রধান যিনি আঙ্কারা সফর করলেন।

টুইটে কাতারি আমির শেখ তামিম বলেন, ‘আমরা তুরস্কের ভাইদের পাশে দাঁড়িয়েছি, যে দেশটি মুসলিম বিশ্ব এবং কাতারের বিভিন্ন ইস্যুতে পাশে দাঁড়িয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘গত শুক্রবার আঙ্কারায় প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের সঙ্গে আলোচনার অংশ হিসেবে, আমরা দেশটিতে ডিপোজিট প্যাকেজ এবং বিভিন্ন প্রকল্পে ব্যয়ের অংশ হিসেবে ১৫ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিচ্ছি।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com