সংবাদ শিরোনাম :
শায়েস্তাগঞ্জে রেল লাইনে ঝুঁকিপূর্ণ বাজার দুর্নীতিমুক্ত সেবা প্রদানের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর শীতার্থ মানুষের পাশে দাঁড়ালেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যাহ প্রথম সংসদেই বাহুবলকে পৌরসভায় উন্নীত করণের দাবি তোলে ধরবো: মিলাদ গাজী এমপি শিক্ষার মান উন্নয়নে সরকার নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে: শেখ আফিল উদ্দিন এমপি বেনাপোল পদ্মবিল এখন দেশি-বিদেশি পাখির অভয়াশ্রম বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই হাবিব জেলার শ্রেষ্ট পুলিশ অফিসার নির্বাচিত হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ডাকাত লিলু আটক যতদিন বেঁচে থাকবো আপনাদের সংঘটের সাথে থাকতে চাই: এম পি পীর মিসবা নির্যাতিত সেই পূর্ণিমা কিনলেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম
কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েরা বোরকা পরবে: আহমদ শফী

কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েরা বোরকা পরবে: আহমদ শফী

কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েরা বোরকা পরবে: আহমদ শফী
কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েরা বোরকা পরবে: আহমদ শফী

লোকালয় ডেস্ক- নারী শিক্ষা নিয়ে দেওয়া এক বক্তব্যের রেশ না কাটতেই এবার কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়েদের বোরকা পরতে বললেন হেফাজতে ইসলামের আমির আহমদ শফী। বলেছেন, ‘কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে মেয়েদের পড়াতে চাইলে তাদের বোরকা পরাতে হবে। তাদের শিক্ষকরাও নারী হবেন।’

রবিবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে হেফাজত আমির এসব কথা বলেন। একই সঙ্গে তিনি গণমাধ্যমের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন, কারও বক্তব্য যেন বিকৃত করা না হয়। এতে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি ও ভুল বোঝাবুঝি হয়।

এর আগে গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর চট্টগ্রামের হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার বার্ষিক মাহফিলে এক বক্তব্যে আহমদ শফী বলেন, ‘আপনাদের মেয়েদের স্কুল-কলেজে দেবেন না। বেশি হলে ক্লাস ফোর বা ফাইভ পর্যন্ত পড়াতে পারবেন।’

তার এই বক্তব্য নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এমন বক্তব্যকে বৈষম্যমূলক অভিহিত করে তা গ্রহণের সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। আর শফীর বক্তব্যে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিস্মিত ও হতবাক হয়েছেন বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। এর মধ্যেই মেয়েদের পড়ালেখা নিয়ে আবার শফীর নতুন বক্তব্য এল।

রোববারের বিবৃতিতে আহমদ শফী বলেন, ‘কারও বক্তব্যকে ব্যাখ্যা দিতে হলে আপনাকে তার কথা বুঝতে হবে। অনুধাবন করতে হবে। না বুঝে নিজের মতো করে ব্যাখ্যা দাঁড় করানো এক ধরনের অপরাধ। আর খণ্ডিত বক্তব্যকে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা আরও বড় অপরাধ। কোনো কিছু লিখতে চাইলে সুস্থ মস্তিষ্কে চিন্তাশীল হয়ে সঠিক কথাটি লিখবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটি মহল আমাকে বিতর্কিত করতে মরিয়া হয়ে মাঠে নেমেছে। আমাকে নারী বিদ্বেষী, নারীশিক্ষাবিরোধী হিসেবে উপস্থাপন করার অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। আমি এসব কথার জবাব দিয়েছি।’

বিবৃতিতে হেফাজত আমির বলেন, ‘আবারও বলছি, নারীদের জন্য নিরাপদ পরিবেশে শিক্ষার ব্যবস্থা করুন এবং তাদের জীবন ও ইজ্জতের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। কেউ কারও কন্যাকে অনিরাপদ পরিবেশের দিকে ঠেলে দিতে পারে না। কারণ, দৈনিক পত্রিকা খুললেই প্রতিদিন চোখে পড়ছে কোথাও না কোথাও কোনো নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছে অথবা খুন করা হয়েছে। নৈতিকতা অর্জন না হলে ধর্ষণ, খুন ও উত্ত্যক্তকরণ বন্ধ হবে না। নারীর প্রতি বৈষম্য দূর হবে না। ইসলামই ফিরিয়ে দিয়েছে নারীর প্রকৃত সম্মান। আমার কথার সারাংশ হলো উচ্চশিক্ষা কিংবা কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পড়াতে চাইলে বোরকা পরতে হবে এবং তাদের শিক্ষকও মহিলা হবেন।’

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার বার্ষিক মাহফিলে হেফাজতের আমির উপস্থিতি লোকজনের কাছে মেয়েদের স্কুল-কলেজে না পাঠানোর জন্য ওয়াদা নিয়েছিলেন।

এ সময় তিনি বলেছিলেন, ‘আপনাদের মেয়েদের স্কুল-কলেজে দেবেন না। বেশি হলে ক্লাস ফোর বা ফাইভ পর্যন্ত পড়াতে পারবেন। বিয়ে দিলে স্বামীর টাকা-পয়সা হিসাব করতে হবে। চিঠি লিখতে হবে স্বামীর কাছে। আর বেশি যদি পড়ান, পত্রপত্রিকায় দেখছেন আপনারা, মেয়েকে ক্লাস এইট, নাইন, টেন, এমএ, বিএ পর্যন্ত পড়ালে ওই মেয়ে আপনার মেয়ে থাকবে না। অন্য কেহ নিয়ে যাবে। পত্রপত্রিকায় এ রকম ঘটনা আছে কি না? ওয়াদা করেন। বেশি পড়ালে মেয়ে আপনাদের থাকবে না। টানাটানি করে নিয়ে যাবে আরেকজন পুরুষ।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com