সংবাদ শিরোনাম :
কথিত সাংবাদিক জুবায়েরের বিরুদ্ধে মদ খেয়ে মাতলামী করার অভিযোগ করেন নালুয়া চা বাগান কতৃপক্ষ

কথিত সাংবাদিক জুবায়েরের বিরুদ্ধে মদ খেয়ে মাতলামী করার অভিযোগ করেন নালুয়া চা বাগান কতৃপক্ষ

জুয়েল চৌধুরী/হাবিবুর রহমান শাওন ।। চুনারুঘাটের কথিত সাংবাদিক জুবায়েরের বিরুদ্ধে মদ খেয়ে মাতলামীর অভিযোগ করেছেন ডানকান ব্রাদ্রার্স এর নালুয়া চা বাগান কতৃপক্ষ।

গতকাল (৫ আগষ্ট) বুধবার নালুয়া চা বাগানের ম্যানেজার ইফতেখার এনাম স্বাক্ষরিত অভিযোগ পত্রটি আহম্মদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবেদ হাসনাত চৌধুরী সনজু এর বরাবর প্রদান করেন।
এবং স্থানীয় গুইবিল সীমান্ত ফাঁড়ীর ইনচার্জ কে অনুলিপি প্রদান করেন। অভিযোগ পত্র গ্রহন করার কথা চেয়ারম্যান সনজু চৌধুরী ও বিজিবির সুবেদার বুরহান উদ্দিন স্বীকার করেন।

ম্যানেজার অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেন যে,নালুয়া চা বাগানের দুমদুমিয়া লেইকে কথিত সাংবাদিক মোঃ জুবায়ের আহমদ (গ্রাম ধলাজাই,গাজিপুর ইউনিয়ন) এর নেতৃত্বে কতিপয় বহিরাগত বিভিন্ন বয়সের লোকজন ছেলে-মেয়ে সহ উক্ত লেইকে সকাল ১০ টা হইতে বেশ কিছু সময় অতিবাহিত করেন এবং হই-হোল্লোড় করে আড্ডায় মেতে উঠেন।
বাগানের কর্তব্যরত চৌকিদারের নিষেদ সত্ত্বে ও জোড় জবরদস্তি করে সেখানে প্রবেশ করে।এ ছাড়াও উক্ত চৌকিদার তাদের কে অবৈধ পানীয় ও মাদক সেবন করতে দেখে বাগান কতৃপক্ষ কে অবহিত করে।স্থানীয় বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা ঘটনাটি দেখে তাকে নিষেদ করেও কোন কাজ হয়নি।বর্তমানে এই বিষয়টি নিয়ে বাগান শ্রমিকদের মাঝে চাপাক্ষোভ বিরাজ করছে।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারিতে স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য বাগানে বহিরাগতদের অনুপ্রবেশ নিষেদ করেছেন কতৃপক্ষ ।

উল্লেখ্য কতিথ সাংবাদিক জুবায়ের নিজেকে কখনো কৃষকলীক নেতা,কখনো নৌকার কান্ডারী,কখনো কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র,(যদিও বিশ্ব বিদ্যালয়ের কেউ তাকে চিনেনা) কখনো জিটিভি,কেটিভি,সিএনএন, চৌকস সহ অসংখ্য পত্রিকার বড় বড় পদ ব্যবহার করে সাধারণ মানুষ কে ধোকা দিয়ে ফায়দা লুঠছে।সে একটি পাহাড়ী অজপাড়াগায়ের ছেলে।২বছর পুর্বেও ছেড়া গেঞ্জি পড়ে ঘুরছে। এখন নিজে একটি প্রাইভেট কার (কাগজ বিহিন)ও ২ টি মোটরসাইকেল (নাম্বার বিহিন) চালাচ্ছেন কি ভাবে জন মনে প্রশ্ন জেগেছে?

বিদ্যুৎ সংযোগের নামে টাকা আত্মসাৎ ও নিজের সৎ ভাই সেনা সদস্য কে মেজর পরিচয় দিয়ে লোকজনের সাথে প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। সারাদেশে যখন প্রতারকদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে ঠিক তখন কতিথ সাংবাদিক জুবায়েরের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে এলাকাবাসী জোড় দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত জুবায়ের আহমেদ জানান অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

আহমদাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত সনজু জানান অভিযোগ পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com