ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম, এবার ভক্ত হয়ে গেলাম: ভারতীয় বিচারপতি

ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম, এবার ভক্ত হয়ে গেলাম: ভারতীয় বিচারপতি

ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম, এবার ভক্ত হয়ে গেলাম: ভারতীয় বিচারপতি
ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম, এবার ভক্ত হয়ে গেলাম: ভারতীয় বিচারপতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- শান্তির বার্তা হিসেবে আটক ভারতীয় পাইলটকে মুক্তির ঘোষণা দেয়ায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রশংসা করেছেন ভারতীয় এক বিচারপতি। ইমরান খানের বুদ্ধি ও প্রজ্ঞার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি মারকানডে কাটজু।

মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারের এক পোস্টে তিনি বলেন, আমি আগে ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম। কিন্তু টেলিভিশনে তার (রাজনৈতিক) প্রজ্ঞা ও বুদ্ধিদীপ্ত বক্তব্যের কারণে তার ভক্ত হয়ে গেলাম।

পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যেই ভারতীয় পাইলটকে আটক করে পাকিস্তান। যুদ্ধের চেয়ে তখন পাইলট আটক হওয়ার ইস্যুই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। বৃহস্পতিবার পাকিস্তানে আটক পাইলটকে মুক্তি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

ইমরান খানের এমন সিদ্ধান্তে অনেকেই হতবাক হয়ে যান। দ্রুত এমন ইতিবাচক সিদ্ধান্ত আসবে এমন ধারণা ভারতীয়রা কল্পনাও করতে পারেনি। ফলে ভারতের বিভিন্ন মহল থেকে ইমরানের প্রশংসা করা হচ্ছে।

পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যে ইমরান খান বৃহস্পতিবার দেশটির পার্লামেন্টে ভাষণ দেন। ভাষণে তিনি শান্তির পক্ষে নিজেদের জোরালো অবস্থান ব্যক্ত করেন। ভারতকে শান্তির প্রস্তাব দেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানান।

ইমরান খান পাকিস্তানে আটক ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনকে মুক্তি দেয়ার ঘোষণা দেন। পাশাপাশি এও সতর্ক করেন যে, পাকিস্তানের এমন সিদ্ধান্তকে ভারত যেন দুর্বলতা মনে না করে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর এমন মনোভাবের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। ইমরান খানের পার্লামেন্টে ভাষণের পর সন্ধ্যায় তাকে টেলিফোন করেন এরদোগান। পাক-ভারত উত্তেজনা কমাতে ও শান্তির পক্ষে কাজ করতে ইমরান খান ভারতকে যে প্রস্তাব দিয়েছেন, তাকে রাষ্ট্রনায়কোচিত পদক্ষেপ হিসেবে অভিহিত করেন এরদোগান।

ইমরান খানের দল পিটিআই এ ফোনালাপ নিয়ে একটি টুইট করেছে। সেখানে তারা ইমরান ও এরদোগানের হাস্যোজ্জ্বল একটি ছবিও প্রকাশ করেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় কেন্দ্রীয় আধা-সামরিক বাহিনীর (সিআরপিএফ) গাড়ি বহরে জঙ্গি হামলায় ৪০ জওয়ানের প্রাণহানি ঘটে। এ ঘটনার দায় স্বীকার করে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জয়েশ-ই-মোহাম্মদ।

পুলওয়ামা হামলার জবাবে গেল মঙ্গলবার পাক-অধিকৃত কাশ্মীরে জয়েশের ঘাঁটিতে ভারতীয় বিমানবাহিনী অভিযান চালিয়ে ৩০০ জঙ্গিকে হত্যার দাবি করে ভারত। এই অভিযানের একদিন পর বুধবার দুই দেশের আকাশসীমায় পাল্টাপাল্টি বিমান অনুপ্রবেশের ঘটনা ঘটে।

পাকিস্তান বলছে, তারা ভারতীয় বিমানবাহিনীর দুটি বিমান ভূপাতিত এবং একজন পাইলটকে আটক করেছে। ভারতের দাবি, তারাও পাকিস্তানের একটি যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করেছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে জানায়, পাকিস্তানি অনুপ্রবেশ ঠেকানোর সময় ভারতীয় একটি মিগ-২১ যুদ্ধবিমান ও পাইলট নিখোঁজ হয়েছে।

ইসলামাবাদে আটক ভারতীয় পাইলটকে শুক্রবার মুক্তি দেয়া হবে বলে পাকিস্তানের পার্লামেন্টে জরুরি এক অধিবেশনে ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com