আড়াইগুণ বেশি যাত্রী ছিলো শেষের বগি গুলোতে

আড়াইগুণ বেশি যাত্রী ছিলো শেষের বগি গুলোতে

আড়াইগুণ বেশি যাত্রী ছিলো শেষের বগি গুলোতে
আড়াইগুণ বেশি যাত্রী ছিলো শেষের বগি গুলোতে

মৌলভীবাজার: দ্বিগুণের বেশি বা প্রায় আড়াইগুণ যাত্রী বহনকে কুলাউড়ায় কালভার্ট ভেঙে ট্রেনটি খালে পড়ে যাওয়ার অন্যতম প্রধান কারণ হিসেবে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

জানা গেছে প্রতিটি বগির যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ৬০, সেখানে প্রায় দেড়শ যাত্রীা প্রতিটি বগিতে বহন করা হচ্ছিলো।

৬০ জনের একেক বগিতে ১৮০ থেকে ২০০ জন থাকার কথা বলছেন অনেকেই। ২ বগি খালের পানিতে পড়ার পাশাপাশি ৪-৫ টি বগি কালভার্টের পাশের ক্ষেতে আছড়ে পড়ে। স্থানীয়রা তাৎক্ষণিক উদ্ধার কাজ শুরু করেন। পরে ফায়ার সার্ভিস এসে উদ্ধার কাজে যোগ দেয়।

ইতিমধ্যে ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেসের তিনটি বগির উদ্ধার কাজ শুরু করেছে ফায়ার সার্ভিস। ঘটনায় এখন পর্যন্ত পাওয়া খবরে ৫ জন নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। পানির নিচে আরও অনেকে রয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রবিবার রাত ১২টার দিকে কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে রেল কর্মকর্তা ও স্থানীয়রা জানিয়েছে।

উদ্ধারকারী ট্রেন ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি আকষ্মিক। উদ্ধার কাজে তাই প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম ও অ্যাম্বুলেন্স সেখানে পৌছুতে চেষ্টা করছে। মৌলভীবাজারের সবগুলো অ্যাম্বুলেন্স দুর্ঘটনাস্থলে পৌছুনোর জন্য রওয়ানা হয়েছে।

ঘটনাটিকে ভয়াবহ বলে উল্লেখ করছেন স্থানীয়রা ও রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপারসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থলে পৌছেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com