আজ থেকে শিক্ষকদের অনশন

আজ থেকে শিক্ষকদের অনশন
আজ থেকে শিক্ষকদের অনশন

স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর একযোগে এমপিওভুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আজ বৃহস্পতিবার থেকে অনশনে বসবেন আন্দোলনরত শিক্ষকরা। খবরটি নিশ্চিত করেছেন শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার।

এদিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের নেতৃত্বে বুধবারও দ্বিতীয় দিনের মতো আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। সেখানে আন্দোলনকারীরা নিজেদের দাবির পক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন ও বক্তৃতা করছেন। এর আগে মঙ্গলবার রাতেও অনেক শিক্ষক আন্দোলনের অংশ হিসেবে সেখানে রাত কাটিয়েছেন।

শিক্ষক নেতা গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ পেতে আমরা পদযাত্রা করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সেটি বাধাপ্রাপ্ত হতে পারে জেনে আমরা অনশেন বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আমরণ অনশনে বসবে শিক্ষকরা। সারাদেশে পাঁচ হাজার প্রতিষ্ঠান স্বীকৃতি পেয়েছে। আমরা বিশ্বস্ত সূত্রে খবর পেয়েছি এসব প্রতিষ্ঠান থেকে মাত্র দুইশ প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হয়েছে। আমরা কোনোভাবেই এই সিদ্ধান্ত মানব না।’

শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি আরও বলেন, ‘দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়ে আমাদের বারবার ঠকানো হচ্ছে। আন্দোলন করার কোনো ইচ্ছে নেই আমাদের, আমরা ক্লাশরুমে শিক্ষার্থীদের কাছে ফিরে যেতে চাই। আমাদের ন্যায্য দাবিটুকু মেনে নিক সরকার। এটাই চাওয়া।’

শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ বিনয় ভূষণ রায় বলেন, ‘বর্তমান যে নীতিমালার ওপর ভিত্তি করে সরকার এমপিওভুক্ত করতে চাচ্ছে সে নীতিমালা আমরা মানি না। এই চাপিয়ে দেওয়া নীতিমালায় এমপিওভুক্ত করা হলে শিক্ষকরা তা প্রতিহত করবে।’

তিনি বলেন, ‘ভুলে ভরা নানা অসঙ্গতিপূর্ণ নীতিমালা অনুসরণ করে এমপিও তালিকা প্রকাশ হলে বাংলাদেশের বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এতে সরকারও সমালোচনার মুখে পড়বে এবং শিক্ষকদের মধ্যে অসন্তোষ তৈরি হবে।’

এ কারণে ‘অসঙ্গতিপূর্ণ ও ভুলে ভরা’ এই নীতিমালা অনুসরণ করে এমপিও তালিকা প্রকাশ না করার জন্য অনুরোধ জানান এই শিক্ষক নেতা।

এদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এমপিওভুক্তির জন্য বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকেও সম্মতি দেওয়া হয়েছে। এবছর মাধ্যমিক স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মিলিয়ে ২ হাজার সাতশ’রও কিছু বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হতে পারে। যেকোনো সময় এমপিওভুক্তির এই তালিকা প্রকাশ করা হতে পারে।

এমপিওভুক্ত হলে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা সরকার থেকে মাসে মূল বেতন ও কিছু ভাতা পান। বর্তমানে সারা দেশে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রায় ২৮ হাজার। এগুলোতে শিক্ষক-কর্মচারী আছেন প্রায় ৫ লাখ। সর্বশেষ ২০১০ সালে ১ হাজার ৬২৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়েছিল। এরপর থেকে এমপিওভুক্তির দাবিতে শিক্ষক-কর্মচারীদের আন্দোলন চলছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com