অমানুষঃ যে কি-না ধর্ষণ করল অবলা পশুকে!

অমানুষঃ যে কি-না ধর্ষণ করল অবলা পশুকে!

অবলা পশু

ধর্ষণ কি?: অধিকাংশ বিচারব্যবস্থায় ধর্ষণ বলতে কোনো ব্যক্তি কর্তৃক অন্য কোনো ব্যক্তির অনুমতি ব্যতিরেকে তার সঙ্গে যৌনসঙ্গমে লিপ্ত হওয়া কিংবা অন্য কোনোভাবে তার দেহে যৌন অনুপ্রবেশ ঘটানোকে বুঝায়। সরকারি স্বাস্থ্য সংস্থা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা, স্বাস্থ্যকর্মী এবং আইনবিদদের মধ্যে ধর্ষণের সংজ্ঞা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। ভিন্ন ভিন্ন ঐতিহাসিক যুগ ও ভিন্ন ভিন্ন সংস্কৃতিতেও ধর্ষণের সংজ্ঞার ক্ষেত্রে ভিন্নতা দেখা দিয়েছে। সময়ের সাথে ধর্ষণের সংজ্ঞারও পরিবর্তন ঘটেছে। ১৯৭৯ সালের পূর্বে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোনো পুরুষকে তার স্ত্রীকে ধর্ষণ করার দায়ে অভিযুক্ত করা যেত না। ১৯৫০-এর দশকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কিছু কিছু রাজ্যে কোনো শ্বেতাঙ্গ নারী স্বেচ্ছায় কোনো কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির সঙ্গে যৌনসঙ্গমে লিপ্ত হলেও সেটিকে ‘ধর্ষণ’ বিবেচনা করা হত।

বিবেকের প্রশ্নঃ এতো গেল মানুষে মানুষে সংজ্ঞা। কিন্তু মানুষে পশুতে যৌন সঙ্গমকে আমরা কি বলে আখ্যা দিব? অবলা নিরিহ পশু কথা বলতে পারে না, কোন অনুভুতি প্রকাশ করতে পারে না। অপরাধের বিরুদ্ধে কোন প্রতিবাদ করতে পারে না। তাই কোন বিচারও পায় না। তবে মানুষতো বিবেক বুদ্ধি সম্পন্ন। সে কেমন করে পশুকে ধর্ষণ করে। জেনে নেই সেই কাহিনী।

মুল ঘটনাঃ গর্ভবতী (গাভীন) ছাগলকে ধর্ষণ করার অভিযোগে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে এক তরুণকে। ওই তরুণকে তার নিজ ঘর থেকে হাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী। এরপর ছাগলের দড়ি দিয়ে গলা বেঁধে রাখা হয়। সবার সামনেই নগ্ন করা হয় ওই তরুণকে। সেই সঙ্গে তাঁর মা-বাবাকেও গ্রাম ছাড়া করেছে এলাকাবাসী। যুক্তরাজ্যভিত্তিক পত্রিকা দ্য সান এই খবর প্রকাশ করেছে। নাইজেরিয়ার উগো নামক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ২০ বছর বয়সী শিনা র‍্যাম্বো নামের তরুণের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, ওই তরুণের ঘর থেকে ছাগলের ডাক শোনা যাচ্ছিল। এরপর জোর করে দরজা খোলা হয়। একটি গর্ভবতী ছাগলের সঙ্গে আপত্তিকর কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় তাঁকে ধরা হয়। এরপর তাঁকে এলাকার কর্তা ব্যক্তিদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।স্থানীয় একটি গণমাধ্যম জানিয়েছে, ওই গ্রামের এক নেতা জানান, র‍্যাম্বো প্রায়ই বিকৃত কাজে লিপ্ত থাকে। আজই প্রথম সে এমন কাজ করেনি। এসব কাজ করার জন্য এর আগেও দুটি গ্রাম থেকে তাকে বের করে দেওয়া হয়। চুরিও করত সে। তার মা-বাবাকেও গ্রাম ছাড়তে বলা হয়েছে। ওই তরুণের বাবা খুব ভালো মানুষ বলেই, র‍্যাম্বোকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া তাকে কিছু জরিমানাও করা হবে বলে জানান ওই নেতা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com