সংবাদ শিরোনাম :
‘হাওয়া’ ছবিতে বন্য প্রাণী আইন লঙ্ঘিত হয়েছে, দাবি বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের আগামীতে সিলেট-নিউইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট: বিমান প্রতিমন্ত্রী কাতার বিশ্বকাপ একদিন এগিয়ে আনলো ফিফা ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত সমুদ্রবন্দরে, বৃষ্টির পূর্বাভাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি বাড়ানোর বিষয়ে ভাবছে সরকার : শিক্ষামন্ত্রী অটোরিকশা থেকে লাফ দিয়ে পড়ে মারা গেলেন শায়েস্তাগঞ্জে স্কুল শিক্ষিকা সুপ্তা বৈশ্বিক মন্দায়ও অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশ ভালো আছে : সিলেটে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মা সেতু হয়ে টুঙ্গিপাড়ায় গেলেন প্রধানমন্ত্রী নবীগঞ্জে গ্রামীণফোনের নেটওয়ার্ক বিড়ম্বনায় গ্রাহকরা মাকে খুন করে লাশের পাশেই রাত কাটালেন ছেলে
অভিভাবকদের সময়ের সদ্ব্যবহার

অভিভাবকদের সময়ের সদ্ব্যবহার

সন্তানদের ক্লাস বা কোচিং শেষ না হওয়া পর্যন্ত স্কুল-কলেজের সামনে বসে থাকেন অধিকাংশ অভিভাবক। এ সময় তাঁদের কিছুই করার থাকে না। স্কুল-কলেজের সামনে তাঁদের ভিড়ের কারণে যানজটও বেঁধে যায়। অভিভাবকেরা এভাবে বসে না থেকে সময়টা কীভাবে কাজে লাগাবেন? জানাচ্ছেন মাহবুব আলম, এঁকেছেন রাজীব

প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিরুদ্ধে সচেতনতা
আমাদের কারও কারও হাতে আর কিছু থাক বা না থাক, সময় আছে অফুরন্ত। সেটা বোঝা যায় ফেসবুকে কোনো সেলিব্রিটির পোস্টের কমেন্ট পড়লে। কেবল সময়ই নয়, বাংলা ভাষায় যে উচ্চারণের অযোগ্য এত শব্দ আছে, সেটাও জানা যায় সেখানে। দেশের ওই ফেসবুকারদের সংখ্যা এতই বেশি যে কদিন পর বাংলাদেশের ইন্টারনেট ভেঙেও পড়তে পারে। অভিভাবকেরা ওই ফেসবুকারদের খুঁজে বের করে সবাই মিলে রিপোর্ট করতে পারেন। এ ছাড়া ফেসবুকে প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিরুদ্ধে আন্দোলন ও সচেতনতা গড়ে তোলার জন্য রাখতে পারেন বিশেষ অবদান।

তদন্ত কমিটিকে সহায়তা
দেশে ঘটনা বা দুর্ঘটনায় অনেক তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। তবে তদন্তের রিপোর্ট আলোর মুখ দেখে খুব কমই। পর্যাপ্ত ধৈর্যশীল লোকবলের অভাবে কমিটি হয়তো এসব তদন্ত রিপোর্টের কাজ চালিয়ে যেতে পারে না। অভিভাবকেরা জাতির ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেক চিন্তা করেন। তাই স্বেচ্ছায় বিনা পারিশ্রমিকে তদন্ত কমিটিকে সহায়তা করতেই পারেন।

যান্ত্রিক কাজে সহায়তা
ইয়ারফোন মানেই প্যাঁচ। অহেতুক এই প্যাঁচের কারণে পৃথিবীর অনেক সরল মানুষ ইয়ারফোন ব্যবহার করা থেকে অবসর নিয়েছেন। আর পাবলিক প্লেসে ইয়ারফোন ব্যবহারের ফলে কমে যায় শব্দদূষণ। তাই অভিভাবকেরা চাইলেই বিনা মূল্যে মানুষের ইয়ারফোনের প্যাঁচ খোলার মতো মহান দায়িত্ব কাঁধে নিতে পারেন। চাইলে ‘খোলো’ নামে একটি অ্যাপ খুলে কিছু আয়-রোজগারও সম্ভব।

ফুটবল-দর্শক
কেবল এই অভিভাবকেরাই পারেন দেশের ফুটবলকে বিলুপ্তির পথ থেকে ফিরিয়ে আনতে। বাংলাদেশের ফুটবলে গোলের মতো দর্শকও খুব একটা দেখা যায় না। গ্যালারির চেয়ারগুলো পড়ে থাকে বেকার। অভিভাবকেরা বেকার সময় না কাটিয়ে সন্তানদের স্কুলে দিয়ে সোজা মাঠে গিয়ে গ্যালারির খালি আসনগুলো পূরণ করতে পারেন। সময় কাটবে, বিনোদনও পাবেন।

প্রবাদ মেনে রেকর্ড
অনেকেই অনেক সময় ‘কত ধানে কত চাল’ প্রবাদটি ব্যবহার করেন। আক্ষরিক অর্থেই সেটা কখনো হিসাব করে দেখা হয় না। এ ক্ষেত্রে অভিভাবকেরা কত ধান থেকে কত চাল উৎপন্ন হয়, সেটা সঠিকভাবে গুনে একটা রেকর্ড করতে পারেন। গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে খবর দিলে এটা অবশ্যই সম্ভব।

বই প্রকাশ
অভিভাবকেরা চাইলেই অসংখ্য বই লিখতে পারেন।
প্রতিদিন বিভিন্ন বিষয়ে অনেক গল্পগুজব করেন তাঁরা। এসবের সংকলন নিয়ে প্রতিবছর বিভিন্ন ধরনের বই লেখা যায়। এতে দেশের সাহিত্যক্ষেত্রে আসবে বৈচিত্র্য, তৈরি হবে নতুন পাঠক। এ ছাড়া ‘এ প্লাস পাওয়ার ১০১টি উপায়’, ‘সফল অভিভাবকের সূত্র’ ধরনের বইও তাঁরা লিখতে পারেন অনায়াসে।

বিশেষ শ্রোতা
দেশে অনেক বক্তা আছেন। অনেক কিছুই বলতে চান তাঁরা, কিন্তু শ্রোতা খুঁজে পান না। অভিভাবকেরা স্কুল-কলেজের সামনে বসে না থেকে সেসব বক্তার সামনে গিয়ে বসতে পারেন। তাতে যদি বক্তা একটু মোটিভেশন পান, মন্দ কী!

বি.দ্র.: এ লেখাটি স্কুল-কলেজের সামনে বসে যেসব অভিভাবক পড়েছেন, তাঁদের প্রাণঢালা অভিনন্দন!

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com