সংবাদ শিরোনাম :
হবিগঞ্জে মেয়র প্রার্থী মিজানের কর্মীদের হয়রানীর অভিযোগ করোনায় মৃত স্বজনহীন ব্যক্তির পাশে দাঁড়ানো মানবপ্রেমিকদের সংবর্ধনা জানালো পুনাক। নবীগঞ্জে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, অর্ধশতাধিক আহত।। শায়েস্তাগঞ্জে গাঁজাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার। শায়েস্তাগঞ্জে স্কুল ছাত্র তানভীর হত্যার প্রতিবাদে শোকসভা কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা হচ্ছে : আইজিপি। বিদ্রোহীদের জন্য আওয়ামী লীগের দরজা চিরতরে বন্ধ। নানক। কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার করে ফাঁসির দাবীতে  গোবিন্দগঞ্জে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত। হবিগঞ্জের বানিয়াচঙ্গে সার্কেল ডে অনুষ্ঠিত। ‌থানার দরজা হবে সেবাগ্রহীতার জন্য উম্মূক্ত- সার্কেলের নবাগত সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মুরাদ 
৩২ বছর পর অপহৃত সন্তানকে ফিরে পেলেন বাবা-মা

৩২ বছর পর অপহৃত সন্তানকে ফিরে পেলেন বাবা-মা

lokaloy24.com

লোকালয় ডেস্কঃ  ১৯৮৮ সালে একটি হোটেলের সামনে থেকে অপহৃত হয় এক চীনের এক দম্পতির সন্তান। তিন দশকের বেশি সময় ধরে ছেলেকে ফিরে পেতে চেষ্টা চালিয়ে গেছেন তারা। অবশেষে ৩২ বছর পর সন্তানকে খুঁজে পেয়েছেন তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

লি জিংঝি এবং মাও ঝেনজিং দম্পতির দুই বছরের ছেলে মাও ইন একদিন বাবার সঙ্গে নার্সারি থেকে বাড়ি ফেরার পথে পানি খেতে চান। একটি হোটেলের সামনে তাকে দাঁড় করিয়ে পানি নিয়ে ফিরে এসে আর পাননি ছেলেকে। তাকে অপহরণ করে ৬ হাজার ইউয়ানে বিক্রি করে দেয়া হয়েছিল সিচুয়ান প্রদেশের এক সন্তানহীন দম্পতির কাছে।

অপহরণের পর ছেলের খোঁজে মরিয়া হয়ে ওঠেন বাবা-মা। ছেলের খোঁজ করতে গিয়ে নিজের চাকরিও ছেড়ে দেন মা লি জিংঝি। ১০ টিরও বেশি প্রদেশে লাখ লাখ প্রচারপত্র ছড়িয়েছেন। সাহায্য চেয়ে চেয়ে বছরের পর বছর উপস্থিত হয়েছেন একাধিক টেলিভিশন শোতে। কিন্তু সন্ধান পাননি নিজের ছেলের।

গত এপ্রিলে সিচুয়ান প্রদেশে ৩৪ বছর বয়সী এক ব্যক্তির খোঁজ পায় চীনের পুলিশ। ওই ব্যক্তিকে ১৯৮০’র দশকের শেষ দিকে দত্তক নেয়া হয়েছিল। সেই সূত্র ধরে ডিএনএ পরীক্ষায় নিশ্চিত হওয়া যায় দত্তক নেয়া গু নিঙিং হলেনলি জিংঝি এবং মাও ঝেনজিং দম্পতির ছেলে মাও ইন।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ওই ব্যক্তিকে বাবা-মায়ের হাতে তুলে দিয়েছে পুলিশ। ৩৪ বছর বয়সী মাও ইন বর্তমানে একটি হোম ডেকোরেশনের ব্যবসা চালাচ্ছেন। বাবা-মাকে ফেরত পাওয়ার পর এখন বাকি জীবনটা তাদের সান্নিধ্যেই কাটাতে চান তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com