৩০০ কোটি রুপির মালিক অটোরিকশাচালক!

৩০০ কোটি রুপির মালিক অটোরিকশাচালক!

৩০০ কোটি রুপির মালিক অটোরিকশাচালক!
৩০০ কোটি রুপির মালিক অটোরিকশাচালক!

লোকালয় ডেস্কঃ  পাকিস্তানের করাচির একজন অটোরিকশাচালক মোহাম্মদ রশিদ। তার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ছিল। কিন্তু তার ওই অ্যাকাউন্টে তিনি কোনো সময় কোনো লেনদেন করননি। কিন্তু হঠাৎ তার অ্যাকাউন্টে কীভাবে যেন ৩০০ কোটি রুপি জমা হয়েছে।

মোহাম্মাদ রশিদ প্রথমে বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না তার অ্যাকাউন্টে এত রুপি। বিষয়টি নিশ্চিত করতে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা থেকে ফোন আসে তার কাছে। তখন রশিদ ভয়ে দেশ ত্যাগের সিদ্ধান্ত নেন। তবে তার বন্ধু আর পরিবারের সদস্যরা তাকে বুঝানোর চেষ্টা করেন পালিয়ে না যেয়ে তদন্ত সংস্থার সঙ্গে দেখা করতে। পরে রাজি হন তিনি। চীনের সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অবশেষে রক্ষা পেয়েছেন রশিদ। কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা তাকে জানায়, দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকারের মানি লন্ডারিং তালিকার পরিপ্রেক্ষিতে তার মতো এমন দরিদ্র অনেকের ব্যাংক হিসাবে কোটি কোটি রুপি জমা হচ্ছে।

দেশটির অনেকের নামে কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই কিন্তু তাদের নামে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলে ধনী ব্যক্তিরা কোটি কোটি অর্থ লেনদেন করছে। সেই অর্থ অাবার বিদেশেও পাচার করা হচ্ছে।

সেপ্টেম্বর মাসে গঠন করা দেশটির সুপ্রিম কোর্টের তদন্ত কমিশনের তথ্য অনুযায়ী ছয়শরও বেশি কোম্পানি আর ব্যক্তি এসব দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত। ভুয়া নামে এখন পর্যন্ত ৪০ কোটির বেশি রুপি পাচার হয়েছে।

অটোরিকশাচালক রশিদ জানান, ওই ঘটনার পর অটোরিকশা রাস্তায় বের করা বন্ধ করে দেন তিনি। কারণ তার সবসময় মনে হতো, তদন্ত সংস্থার সদস্যরা তাকে ধরে নিয়ে যাবেন।

তিনি আরও জানান, তার মেয়ের একটা সাইকেলের ইচ্ছা ছিল। মেয়েকে সাইকেল কিনে দিতে টাকা জমাতে শুরু করেন তিনি। অনেক কষ্ট করে ১২ মাসে মাত্র ৩০০ রুপি জমাতে সক্ষম হন। কারণ অটোরিকশা চালিয়ে ঠিকমতো সংসারই চালাতে পারতেন না তিনি। ওই ঘটনার কিছুদিন আগে তিনি মেয়ের জন্য জমানো ৩০০ রুপি দিয়েই একটি পুরাতন সাইকেল কিনে দেন। আর রাতারাতি কোনোভাবেই কোটিপতি হবার সুযোগ নেই তার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com