১৭ থেকে ২৬ মার্চ ১০ দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন

১৭ থেকে ২৬ মার্চ ১০ দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন

http://lokaloy24.com

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আগামী ১৭ মার্চ হতে ২৬ মার্চ ২০২১ পর্যন্ত দশ দিনব্যাপী ‘চিরন্তন বঙ্গবন্ধু’ থিমের উপর বিশেষ অনুষ্ঠানমালা আয়োজনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

আজ সোমবার বিকালে অনুষ্ঠিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উগযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির এক ভার্চুয়াল সভায় এ কথা জানানো হয়। জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম।

সভায় জানানো হয়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার আলোকে কোভিড-১৯ জনিত বিদ্যমান পরিস্থিতিতে জনসমাগম পরিহার করে এসব অনুষ্ঠান টেলিভিশন চ্যানেল এবং অনলাইনে প্রচার করা হবে। দশ দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানমালায় আলোচনা অনুষ্ঠান, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, অডিও ভিজুয়াল কনটেন্ট এবং অন্যান্য পরিবেশনা থাকবে। মুজিববর্ষ যথাযথভাবে উদ্যাপনের অংশ হিসেবে গৃহীত এসব কর্মসূচি বাস্তবায়নের বিভিন্ন দিক নিয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে সাবেক মন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ, ক, ম, মোজাম্মেল হক, এমপি, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম, এমপি, শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি, এমপি, পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ. কে আব্দুল মোমেন, এমপি, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো: জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার আলম, এমপি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি, সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, এমপি, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো: আতিকুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, গৃহায়ন ও গণপুর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শহীদ উল্লা খন্দকার, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: আখতার হোসেন, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: বদরুল আরেফীন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব খাজা মিয়া, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক এস. এম. হারুন-অর-রশীদ, গণপূর্ত বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ শামীম আখতার, সাবেক সচিব আকতারী মমতাজ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক, সংগীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, কবি তারিক সুজাত, সাংবাদিক সুভাষ সিংহ রায় এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির কার্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com