১০ বছরের বেশি সময় খেলা ধরে রাখার মতো সামর্থ্য শুধু আমার আর মেসির আছে

১০ বছরের বেশি সময় খেলা ধরে রাখার মতো সামর্থ্য শুধু আমার আর মেসির আছে

১০ বছরের বেশি সময় খেলা ধরে রাখার মতো সামর্থ্য শুধু আমার আর মেসির আছে১০ বছরের বেশি সময় খেলা ধরে রাখার মতো সামর্থ্য শুধু আমার আর মেসির আছে
১০ বছরের বেশি সময় খেলা ধরে রাখার মতো সামর্থ্য শুধু আমার আর মেসির আছে

খেলাধুলা ডেস্কঃ রিয়াল মাদ্রিদে থাকতে লিওনেল মেসির সঙ্গে ভীষণ প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। রিয়াল ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দেওয়ার পর সেই আগুনে দ্বৈরথ কি মিলিয়ে গেছে? সে সুযোগ নেই। প্রতিযোগিতার ক্ষেত্র এখন ভিন্ন হলেও মনে মনে দুজনের মধ্যে দ্বৈরথের আগুন তো আছেই। রোনালদো আপাতত সেই দ্বৈরথকে আর উসকে দেননি। বরং চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে নিজের পাশে রেখেই ঘোষণা করলেন, বাকিরা তাঁদের চেয়ে অনেক পিছিয়ে।

সম্প্রতি ‘ফ্রান্স ফুটবল’ সাময়িকীতে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন রোনালদো। সেখানে তিনি ২০১৮ ব্যালন ডি’অর জয়ে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে মোহাম্মদ সালাহ, লুকা মদরিচ, আঁতোয়ান গ্রিজমান, রাফায়েল ভারানে আর কিলিয়ান এমবাপ্পের কথা বলেছেন। তবে এসব তারকা খেলোয়াড় কিংবা এখনকার কেউ টানা ১০ বছরের বেশি সময় শীর্ষ পর্যায়ের ফুটবলে শীর্ষস্থান ধরে রাখার মতো নয় বলেও মনে করেন জুভেন্টাস তারকা। রোনালদো সোজাসাপ্টাই প্রশ্ন তুলেছেন, ‘কজন খেলোয়াড় ১০ বছরের বেশি সময় শীর্ষ পর্যায়ের ফুটবলে নিজেদের মান ধরে রাখতে সক্ষম?’ জবাব দিয়েছেন রোনালদো নিজেই, ‘আপনি তা হাতে গুণেই বলে দিতে পারবেন। দুজন—মেসি এবং আমি।’

তেত্রিশে পা রাখার পর গত জুলাইয়ে জুভেন্টাসে যোগ দেন রোনালদো। ১০০ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফি খরচ করে রোনালদোকে কিনেছে ইতালিয়ান ক্লাবটি। ইতালিতে নিজের প্রথম মৌসুমে শুরুটা খারাপ হলেও তা পুষিয়ে দিচ্ছেন রোনালদো। এম্পোলির বিপক্ষে জুভেন্টাসের সর্বশেষ ম্যাচে করেছেন জোড়া গোল। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এই সংখ্যাটা ১২ ম্যাচে ৭ গোল। সর্বোচ্চ পর্যায়ের ফুটবলে তেত্রিশ বছর বয়সী কোনো তারকার জন্য এই পরিসংখ্যান যথেষ্ট সন্তোষজনক। রোনালদো তা মনে করেই তাঁর বয়সী অন্যান্য খেলোয়াড়ের সঙ্গে নিজের তুলনা টানলেন, ‘আমার বয়সে কোনো খেলোয়াড়ই ১০০ মিলিয়নে অন্য ক্লাবে যোগ দিতে পারেনি। অন্যদের প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, আমার বয়সে তাঁরা চীন, আরব আমিরাত যায় ক্যারিয়ার শেষ করতে। নিজের খেলার মানটা তাঁরা ধরে রাখতে পারে না।’

একদিন রোনালদোও সেই সময়ের মুখোমুখি হবেন। মানে, বয়সের ভারে ন্যুব্জ হয়ে খেলার মানটা আর আগের মতো ধারালো থাকবে না। কিন্তু সেই সময়টা কত দূরে? রোনালদো আন্দাজ করার চেষ্টা করলেন, ‘একদিন এই সময় আসবে। হয়তো চার, পাঁচ কিংবা ছয় বছরের মধ্যে…আপনারা তা ঠিকই দেখবেন।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com