সংবাদ শিরোনাম :
হয়নি ভ্রাম্যমান আদালত-মামলা দিয়ে কারাগারে প্রেরন

হয়নি ভ্রাম্যমান আদালত-মামলা দিয়ে কারাগারে প্রেরন

lokaloy24.com

বানিয়াচংয়ে ফেনীর বাউল শিল্পীসহ চার জনকে আটক করে জনতা।।গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ।

আকিকুর রহমান রুমনঃ-হবিগন্জের বানিয়াচং উপজেলায় ফেনী জেলার এক বাউল শিল্পী ও তিন যুবকসহ চার জনকে একটি বাজারের দোকানের ভিতর থেকে অনৈতিক কাজের দায়ে এলাকাবাসীর হাতে আটক হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পরে তাদেরকে গণধোলাই দিয়ে বানিয়াচং থানাধীন বিথঙ্গল পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দিয়ে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।
ঘটনাটি ঘটেছে,গত ৩১আগষ্ট রবিবার বানিয়াচং উপজেলার ১৫নং পৈলারকান্দী ইউপি’র বিজয়পুর বাজারের একটি মুদি মালের দোকান ঘরের ভিতরে গভীর রাতে।
আটককৃতরা হলো,ফেনী জেলার লাঙ্গল ভূইয়া গ্রামের আব্দুল মতিনের কন্যা বাউল শিল্পী বিউটি আক্তার(২২)বিজয়পুর গ্রামের আব্দুল করিমের পুত্র মাসুম(২৫)মৃত নুরুজ্জামান মিয়ার পুত্র আক্তার হুসেন(২৮)মৃত আক্কল আলীর পুত্র আব্দুল কাইয়ূম মিয়া(৪০)।
পুলিশ সূত্রে ও এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানাযায়,আটককৃতরা বিজয়পুর বাজারের একটি মুদি মালের দোকানের ভিতরে গভীর রাতে অবস্থান নিয়ে তারা অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়।গভীর রাতে তাদের খুশ,গল্পের আলাপ চারিতার ও খারাপ কাজে লিপ্ত খবার বিষয়টি ভাল করে আচ করেন বাজার কমিটির পাহারাদারগন।
তারা এই বিষয়টি বাজার কমিটি ও এলাকাবাসীকে জানালে,এলাকাবাসী বাজারে এসে তাদেরকে এই দোকান ঘর থেকে হাতেনাতে আটক করেন এবং অনেকে উত্তেজিত হয়ে এই জঘন্যতম কাজ বাজারের ভিতরে করার কারনে গণধোলাই দেয় আটক হওয়া যুবকদের।
পরে এই বিষয়টি বিথঙ্গল পুলিশ ফাঁড়িতে অবগত করা হয়।
খবর পেয়ে ফাড়ি পুলিশ রাতেই,এএস,আই কামরুল ইসলাম সঙ্গীয় পৌর্স নিয়ে বাজারে যান এবং তাদেরকে আটক করে ফাঁড়িতে নিয়ে আসেন।
আজ ১লা সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ফাঁড়ি পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে আদালতের মাধ্যমে হবিগঞ্জ জেলা কারাগারে প্রেরন করেন।
এদিকে এমন জঘন্যতম অনৈতিক কাজের ঘটনাটি লোকমুখে জানাজানি হয়ে পড়লে অনেকেই অনেক রকম মন্তব্য প্রকাশ করতে শুনা যাচ্ছে।
আবার অনেকেই গত ২৫ আগষ্ট বানিয়াচং উপজেলা সদরের সাগরদিঘী পশ্চিম পাড়ের বাসিন্দা শামীম মিয়ার বাড়িতে,অনৈতিক কাজে আটক হওয়া”ডিবি পুলিশের হাত থেকে পালিয়ে যাওয়া,বর্তমান সময়ের কুখ্যাত ইয়াবা ব্যাবসায়ী তাম্বলীটুলার মনির ও যাত্রাপাশা গ্রামের,দুই স্বামী পরিত্যক্তা দুঃচরিত্রা ইয়াবা ব্যাবসায়ীদের সহযোগী ও ইয়াবা সেবনকারী তিশনা নামের দু’জনকে অনৈতিক কাজের দায়ে আটক..করেন এলাকাবাসী।
পরে এই বিষয়টি বানিয়াচং থানা পুলিশকে অবগত করা হলে,থানা পুলিশ রাতেই তাদেরকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করে নিয়ে আসেন।
এছাড়া আটককৃতদের সম্পর্কে উপজেলা প্রশাসনকে অবগত করা হলে,আটক মনির ও তিশনাকে ভ্রাম্যমান আদালত মাধ্যমে প্রত্যককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।অনাদায়ে ১৫ দিনের সাজা প্রদান করা হয়।তাই আটককৃত এই চার জনকেও ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিচার ব্যবস্হা করার প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন অনেকেই।
কিন্তু আটক হওয়া এই চার জনকে এসব মামলা দিয়ে একই ঘটনাকে দুই দিকে বিচার ব্যবস্হা করা হয়েছে আলাপ আলোচনা করতে শুনা যাচ্ছে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মনির ও তিশনার ২০ হাজার টাকা জরিমানা করার কারনে মনির সাথে সাথে জরিমানা টাকা দিয়ে মুক্ত হয়ে পালিয়ে গিয়েছিল.!
আর ওদের চার জনকে ভ্রাম্যমান আদালত না করে নিয়মিত মামলা দেওয়া হয়েছে.!
একই রকম দুই ঘটনায়,যেকোন একটি ঘটনার জন্য কোন অদৃশ্য শক্তির হাত রয়েছে বলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com