হাতেনাতে মেয়ের ধর্ষককে ধরে পুলিশে দিলেন অন্ধ বাবা-মা

হাতেনাতে মেয়ের ধর্ষককে ধরে পুলিশে দিলেন অন্ধ বাবা-মা

হাতেনাতে মেয়ের ধর্ষককে ধরে পুলিশে দিলেন অন্ধ বাবা-মা
হাতেনাতে মেয়ের ধর্ষককে ধরে পুলিশে দিলেন অন্ধ বাবা-মা

চাঁদপুর- চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে ইমামকে আটক করেছে হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ। সোমবার দুপুরে আটক ইমামকে চাঁদপুর আদালতে হাজির করলে বিজ্ঞ আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠান।

আটক ইমাম চাঁদপুর সদর উপজেলার দেবপুর জামে মসজিদে কর্মরত ছিলো। তার নাম মোঃ মোজাম্মেল হক। সে শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের মুড়াগাও ভূঁইয়া বাড়ির মোহাম্মদ জাফর আলী মিয়ার ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ধর্ষিতা মেয়ের বাবা দেবপুর এলাকার বাসিন্দা ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী। তিন অন্ধ হওয়ায় স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে দিনের বেলায় হাজিগঞ্জ বাজারে সাহায্য তোলেন। প্রতিবন্ধী এ পরিবারের সরলতার সুযোগে মোজাম্মেল হক মেয়েটিকে ইংরেজি পড়ানোর কথা বলে সম্পর্ক তৈরি করে। পরে মেয়েটিকে ভালোভাবে পড়াবে বলে গেল বছর ১৭ নভেম্বর হাজিগঞ্জ বাজারের মকিমাবাদ ৪নং ওয়ার্ড হাজী ম্যানশনের একটি ফ্ল্যাট বাসা ভাড়া নেয়। মাত্র একদিন মেয়েটিকে পড়ানোর কথা বলে বাসায় নিয়ে আসে। সেখানে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

পরবর্তীতে মেয়েটি বাবা-মাকে বিষয়টি খুলে বলে। এরপর থেকে পলাতক ছিলেন মোজাম্মেল হক।এদিকে মানসম্মানের ভয়ে ওই পরিবারটি কাউকে কিছু না বলে গোপনে মোজাম্মেলকে খুঁজতে থাকে। ৬ মাস পর আজ সোমবার সকালে হাজীগঞ্জ বাজারে ধর্ষক ইমামের সন্ধান পেয়ে তাকে ধরে ফেলে কিশোরীর ভিক্ষুক বাবা-মা।

এরপর স্থানীয় জনতা ইমামকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পুলিশ তাকে আটক করে সোমবার দুপুরে আদালতে পাঠায়।

হাজীগঞ্জ থানা ওসি মো. আলমগীর হোসেন রনি বলেন, মেয়েটিকে ইংরেজি পড়ানোর নাম করে ইমাম সরলতার সুযোগ নেয়। ওই ইমাম একটি বাসা ভাড়া নিয়ে মাত্র ৫০০ টাকা দিয়ে এক দিন ছিল ওই ফ্ল্যাটে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন।

তিনি আরো জানান, মোজাম্মেলের মোবাইলে ওই মেয়েটির আপত্তিকর ছবি পাওয়া গেছে। মেয়েটির মা বাদী হয়ে হাজীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com