সংবাদ শিরোনাম :
নবীগঞ্জে গরু ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে গরু রাখাল খুন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ যুব সমাজ চুনারুঘাটের আহম্মদাবাদ ইউনিয়নজুড়ে জুয়া ও মাদকের ছড়াছড়ি মাধবপুরে মালিকানার জোর দেখিয়ে পথচলায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি!  চুনারুঘাটে শিক্ষা ব্যবস্থায় ধস, ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা লাখাইয়ে ডাকাতদলের সদস্য গ্রেপ্তার শায়েস্তাগঞ্জে পচাঁবাসি খাবার বিক্রির অভিযোগে ফার্দিন মার্দিন রেষ্টুরেন্টকে জরিমানা চুনারুঘাটে ৮ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার অনিয়মের দায়ে এয়ার লিংক ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ককে জরিমানা বানিয়াচংয়ে এক নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হবিগঞ্জে অকৃতকার্য বেড়েছে ৩ গুণের বেশি
হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের প্রধান ফটক যেন ময়লার ভাগাড়

হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের প্রধান ফটক যেন ময়লার ভাগাড়

হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রধান ফটকটি যেন ময়লা আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। নির্দিষ্ট ডাস্টবিন থাকলেও প্রতিনিয়ত ময়লা, মেডিকেল বর্জ্য ও খাবারের উচ্ছিষ্টসহ যাবতীয় আবর্জনা ফেলা হচ্ছে ফটকটির সামনে। যে কারণে বাতাসে ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ। আর এতে করে চরম দূর্ভোগে পড়ছেন জেলার দুরদূরান্ত থেকে আসা রোগীসহ তাদের স্বজনরা। এছাড়াও বিপাকে পড়েছেন হাসপাতাল এলাকার ব্যবসায়ীরা। যদিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, বিষয়টি তাদের নজরে এসেছে দ্রুত এসব ময়লা অপসারণ করা হবে। বুধবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের কর্মরত স্টাফ ও আয়ারা ড্রাম ভর্তি ময়লা আবর্জনা হাসপাতালের একেবারে প্রধান ফটকের কাছে রেখে যাচ্ছে। এছাড়াও রোগী ও তাদের স্বজনরাও নিজেদের উচ্ছিষ্ট ময়লা ব্যাগ ভর্তি করে সেখানে ফেলছেন। যে কারণে গত কয়েকদিনে ফটকটি ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে। অনেককে আবার প্রধান ফটকের সামনে আসলেই নাক টিপ দিয়ে ধরে হেটে যেতে দেখা গেছে। যে কারণে সাধারণ রোগীরা বলছেন, রোগ সারাতে এসে ভাল মানুষও এখানে রোগী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা রফিক আহমেদ জানান, হাসপাতালের এই প্রধান ফকট দিয়ে শুধু রোগী ও তাদের স্বজনরাই আসা যাওয়া করে না এখানে অনন্তপুর, শায়েস্তানগর, জঙ্গলবহুলাসহ আশপাশের কয়েকটি পাড়ার মানুষ যাতায়ত করে। তিনি বলেন, গত কয়েকদিনের ময়লা আবর্জনা এখন স্তুপ হয়ে গেছে। যে কারণে বাতাসে ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ। দ্রæত যদিও এসব ময়লা অপসারণ করা না হয় তা হলে সাধারণ মানুষের দূর্ভোগের মাত্রা আরো বাড়বে। চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ফজল মিয়া জানান, মূলত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণেই এখানে ময়লার ভাগাড় সৃষ্টি হয়েছে। তারা যদিও সঠিক ভাবে মনিটরিং করতে তা হলে এমনটা হতো না। ব্যবসায়ী রুবেল আহমেদ জানান, এটা জেলা সদর হাসপাতাল। এ হাসপাতালের সামনে এমন ময়লা ভাগাড় চিন্তাই করা যায় না। ময়লার কারণে ফটকটির সামনে কেউ একমিনিটও দাড়াতে চায় না। এছাড়াও দুর্গন্ধের কারণে আমরা ব্যবসায়ীরাও ঠিক মতো ব্যবসা পরিচালনা করতে পারছি না। কিছুক্ষণ পরপরই বাতাসে দুর্গন্ধ আসছে। আমরা চাই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যেন দ্রæত এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক আমিনুল ইসলাম সরকার বলেন, বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমি হবিগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করছি। দ্রæত এসব ময়লা অপসারণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com