সংবাদ শিরোনাম :
বানিয়াচং জুয়া খেলার দায়ে পুলিশের হাতে আটক ৪। হবিগঞ্জে বানিয়াচংয়ে  তরুণী ধর্ষণের মামলায়  এক যুবককে কারাগারে। হবিগঞ্জ খোয়াই নদী থেকে বালু উত্তোলন, হুমকির মুখে বাঁধ-বাড়িঘর বানিয়াচংএক মোটরসাইকেল চোর আটক করেছে পুলিশ। তরুণ প্রজন্মকে দক্ষতা অর্জনের দিকে আগ্রহী করে তুলতে হবে। হবিগঞ্জের খাজা গার্ডেন সিটিতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড। হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে জমজমাট জুয়ার আসর ॥ পানি শুকিয়ে যাওয়ায় বিভিন্ন হাওরে বসছে এসব আসর স্থানীয় প্রশাসনের সাথে জুয়াড়িদের সখ্যতার অভিযোগ। হবিগঞ্জ জেলা সংবাদপত্র হকার্স সমিতির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন। ডিস ব্যাবসা নিয়ে মুছা এবং দুলাল মেম্বারের লোকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় ৪চার ।   চুনারুঘাটে মাদক নির্মূল কমিটির সভাপতি মাদক সহ বিজিবির হাতে আটক।
হবিগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত ১০০ ছাড়িয়ে বাড়ি ফিরলেন ১১ জন

হবিগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত ১০০ ছাড়িয়ে বাড়ি ফিরলেন ১১ জন

lokaloy24.com

লোকালয় ডেস্কঃ  হবিগঞ্জে সংক্রমন শুরু হওয়ার ৩০ দিনের মাথায় একশ’ ছাড়িয়েছে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্তের সংখ্যা। সুস্থ হওয়ার পর আইসোলেশন সেন্টার থেকে আনুষ্ঠানিক ছাড়পত্র পেয়েছেন ১১ জন।
গতকাল সোমবার বিকেলে ঢাকায় সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউ (আইইডিসিআর) থেকে নতুন করে ৬ জন ও সিলেট থেকে আরও ১ জনের করোনা পজিটিভ সনাক্ত হওয়ার রিপোর্ট আসে। এনিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা হলো ১০২ জন। হবিগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুখলিছুর রহমান উজ্জ্বল এই তথ্য জানান।
নতুন করে আক্রান্ত ৭ জনের মধ্যে লাখাই উপজেলার তিনজন, বানিয়াচং উপজেলার দুইজন, বাহুবল উপজেলার একজন ও আজমিরীগঞ্জ উপজেলার একজন। তারা হলেন- লাখাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, তার গাড়ি চালক ও সিএ, বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক পরিচ্ছন্নতাকর্মী, আজমিরীগঞ্জ উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নের কৃপালনগর আনন্দপুর এলাকার এক শিশু, বানিয়াচং উপজেলার পূর্বে আক্রান্ত যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার ছেলে ও উপজেলা সদরের জাতুকর্ণ পাড়া চান্দের মহল্লার এক যুবক।

এদিকে, সোমবার দুপুরে জাতীয় নির্দেশনা অনুসরণ করে আড়াইশ’ শয্যা বিশিষ্ট জেলা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিট থেকে সুস্থ হওয়া ১০ ব্যক্তিকে আনুষ্ঠানিক ছাড়পত্র দেয়া হয়। এর আগে ছাড়া পান জেলায় প্রথম আক্রান্ত হওয়া ব্যক্তি। নতুন সুস্থ হওয়া দশজন হলেন, বানিয়াচং উপজেলার ইকরাম নোয়াবাদ গ্রামের নিরুদ দাসের ছেলে অপু দাশ, একই গ্রামের নিতাই দাসের ছেলে অধির দাস, মির মহল্লার শহীদ মিয়ার ছেলে আক্কাছ আলী, বানেশ্বর পাড়ার রহমত আলীর ছেলে সুমন মিয়া, যাত্রাপাশা গ্রামের আলী আহমদের ছেলে উজ্জ্বল মিয়া, দক্ষিণ দৌলতপুর গ্রামের আব্দুস সোবহানের ছেলে অলি মিয়া, চুনারুঘাট উপজেলার মৃত ওয়াজেদ আলীর ছেলে আব্দুল মালেক, লাখাই উপজেলার জাহির মিয়ার ছেলে বাবুল মিয়া, আজমিরীগঞ্জ উপজেলার বিরাট গ্রামের জাকির মিয়ার ছেলে জালাল মিয়া ও নারায়নগঞ্জের ফারুক মিয়ার ছেলে সুমন হাওলাদার। তাদের সকলকেই ৫ হাজার টাকা করে সরকারি সহায়তা এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল উপহার দেয়া হয়।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের হিসেব অনুযায়ী ১১ এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত হবিগঞ্জে করোনা আক্রান্ত ১০২ জনের মধ্যে চিকিৎসক নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী ২৭ জন, একজন জেলা প্রশাসক (ডিসি), একজন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, একজন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও চারজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পাঁচজন পুলিশ সদস্যসহ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ২২ জন। আক্রান্তদের ৪৬ জনই করোনা যোদ্ধা। অন্যরা নানা শ্রেণী-পেশার মানুষ। এদের মধ্যে চুনারুঘাটের এক শিশু মারা গেছে। তবে সে ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিল।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com