সংবাদ শিরোনাম :
বানিয়াচং জুয়া খেলার দায়ে পুলিশের হাতে আটক ৪। হবিগঞ্জে বানিয়াচংয়ে  তরুণী ধর্ষণের মামলায়  এক যুবককে কারাগারে। হবিগঞ্জ খোয়াই নদী থেকে বালু উত্তোলন, হুমকির মুখে বাঁধ-বাড়িঘর বানিয়াচংএক মোটরসাইকেল চোর আটক করেছে পুলিশ। তরুণ প্রজন্মকে দক্ষতা অর্জনের দিকে আগ্রহী করে তুলতে হবে। হবিগঞ্জের খাজা গার্ডেন সিটিতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড। হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে জমজমাট জুয়ার আসর ॥ পানি শুকিয়ে যাওয়ায় বিভিন্ন হাওরে বসছে এসব আসর স্থানীয় প্রশাসনের সাথে জুয়াড়িদের সখ্যতার অভিযোগ। হবিগঞ্জ জেলা সংবাদপত্র হকার্স সমিতির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন। ডিস ব্যাবসা নিয়ে মুছা এবং দুলাল মেম্বারের লোকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় ৪চার ।   চুনারুঘাটে মাদক নির্মূল কমিটির সভাপতি মাদক সহ বিজিবির হাতে আটক।
হবিগঞ্জে কম্পিউটার দোকানে মিলছে বৃন্দাবন কলেজের এইচএসসির প্রবেশপত্র

হবিগঞ্জে কম্পিউটার দোকানে মিলছে বৃন্দাবন কলেজের এইচএসসির প্রবেশপত্র

হবিগঞ্জে কম্পিউটার দোকানে মিলছে বৃন্দাবন কলেজের এইচএসসির প্রবেশপত্র
হবিগঞ্জে কম্পিউটার দোকানে মিলছে বৃন্দাবন কলেজের এইচএসসির প্রবেশপত্র

নিজস্ব প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বৃন্দাবন সরকারি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র কলেজ থেকে না দিয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে কলেজের নির্ধারিত কয়েকটি কম্পিউটার দোকানে। সেখান থেকে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করছেন শিক্ষার্থীরা। যেখানে একটি প্রিন্ট নিতে ১০-১৫ টাকা খরচ হয় সেখানে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে ৩০-৪০ টাকা। এ নিয়ে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

শিক্ষার্থীরা জানান, আগামী ১ এপ্রিল থেকে সারাদেশে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। এই কলেজ থেকে তিনটি বিভাগে এক হাজার ৪৭৫ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছেন। পরীক্ষার প্রবেশপত্র কলেজ থেকে দেয়ার নিয়ম থাকলেও সেখানে মিলছে না। উল্টো কলেজ কর্তৃপক্ষ নোটিশ দিয়ে পরীক্ষার্থীদের জানিয়ে দেন, সিলেট শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট অথবা কলেজের পাশের কম্পিউটার দোকান থেকে প্রবেশপত্র প্রিন্ট করিয়ে নিতে। অথচ শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটে কোনো ধরনের প্রবেশপত্র আপলোড করা হয়নি।

কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, কম্পিউটারের দোকান থেকে প্রবেশপত্র প্রিন্ট নিলে পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমবে। তবে কলেজের ওয়েবসাইটে প্রবেশপত্র আপলোড না করে পেনড্রাইভের মাধ্যমে নির্দিষ্ট তিনটি কম্পিউটার দোকানে কেন সরবরাহ করা হলো এ প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে কয়েকজন পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক জানান, কলেজ কর্তৃপক্ষ যদি পরীক্ষার্থীদের সুবিধার জন্যই এ কাজ করতেন, তাহলে তারা অনার্স পরীক্ষার প্রবেশপত্রের মতো এইচএসসির প্রবেশপত্রও কলেজের ওয়েব সাইটে আপলোড করতেন। তা না করে কলেজ সংলগ্ন কয়েকটি কম্পিউটার দোকানে প্রবেশপত্র সরবরাহ করা হয়। বিনামূল্যের প্রবেশপত্র প্রিন্ট করতে গুনতে হয় ৩০ থেকে ৪০ টাকা। কারণ ওই নির্দিষ্ট কম্পিউটার দোকানগুলো ছাড়া অন্য দোকান থেকে প্রবেশপত্র প্রিন্ট নেয়া যায় না।

এ ব্যাপারে কম্পিউটার দোকানগুলোর মালিকরা জানান, কলেজ থেকে তাদেরকে এ প্রবেশপত্র সরবরাহ করা হয়েছে। কলেজের অফিস সহকারী আলী নেওয়াজ তাদের এ প্রবেশপত্র সরবরাহ করেন।

বিষয়টি স্বীকার করে অফিস সহকারী আলী নেওয়াজ জানান, কলেজ কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তিনি এ প্রবেশপত্র ওই দোকানগুলোতে সরবরাহ করেন। কলেজের ওয়েবসাইটে আপলোড করতে সমস্যা হওয়ায় তিনটি কম্পিউটার দোকানে তা সরবরাহ করা হয়।

এ ব্যাপারে কলেজের অধ্যক্ষ মো. এলিয়াছ হোসেন বলেন, পরীক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য প্রবেশপত্র কম্পিউটারের দোকানগুলোতে সরবরাহ করা হয়েছে।

বিনামূল্যের প্রবেশপত্র কলেজের ওয়েবসাইটে আপলোড না করে কম্পিউটার দোকানে কেন সরবরাহ করা হলো এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, অফিসের কম্পিউটারের সমস্যার কারণে ওয়েবসাইটে আপলোড করা যায়নি।

এ ব্যাপারে সিলেট শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক কবির আহমদ বলেন, এইচএসসির প্রবেশপত্র কলেজ অধ্যক্ষ কর্তৃক সরবরাহ করার কথা। তবে পরীক্ষার্থীদের সুবিধার কথা চিন্তা করলে ওয়েবসাইটে আপলোড করতে পারত কলেজ কর্তৃপক্ষ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com