সংবাদ শিরোনাম :
স্কুলছাত্রীকে ছয়দিন ধরে গণধর্ষণ করে মেরে ফেলে রবিউল ও আজাদ!

স্কুলছাত্রীকে ছয়দিন ধরে গণধর্ষণ করে মেরে ফেলে রবিউল ও আজাদ!

স্কুলছাত্রীকে ছয়দিন ধরে গণধর্ষণ করে মেরে ফেলে রবিউল ও আজাদ!
স্কুলছাত্রীকে ছয়দিন ধরে গণধর্ষণ করে মেরে ফেলে রবিউল ও আজাদ!

নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইলের লোহাগড়ায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রোববার লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে নুপুর খানম নামে ওই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

নিহত নুপুর উপজেলার রায় গ্রামের হিরু বিশ্বাসের মেয়ে। সে আরকেকে জনতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

এ ঘটনায় নুপুরের বাবা বাদী হয়ে সোমবার দুপুরে লোহাগড়া থানায় অভিযোগ দাখিল করেছেন। পুলিশ এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মিনি বেগম নামে ওই নারীকে আটক করেছে।

নিহতের চাচা বাচ্চু বিশ্বাস জানান, ছয়দিন আগে নুপুর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। রোববার সন্ধ্যার পর খবর পেয়ে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে নুপুরের মরদেহ পান তারা।

তার অভিযোগ, ব্রামনডাংগা গ্রামের ওবায়দুর রহমান মানিকের ছেলে রবিউল ইসলাম রুবেল ও জালালসী গ্রামের চান সরদারের ছেলে আজাদ সরদার নুপুরকে অপহরণ করে। তারা লোহাগড়া বাজারের পোদ্দারপাড়া গ্রামের মিনি বেগমের বাসায় রেখে গণধর্ষণ করে।

তবে মিনি বেগম বলেন, চার-পাঁচদিন আগে নুপুর আমার বাড়ি ভাড়া নিয়েছিল। রোববার সন্ধ্যায় নুপুর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, হাসপাতালে আনার আগেই নুপুরের মৃত্যু হয়।

লোহাগড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোকাররম হোসেন বলেন, মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একজনকে আটকও করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com