সুলতানা কামাল: সবার মুখ বন্ধ করতে শহিদুলকে অত্যাচার

সুলতানা কামাল: সবার মুখ বন্ধ করতে শহিদুলকে অত্যাচার

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাধিকারকর্মী এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা সুলতানা কামাল বলেছেন, ‘আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে অত্যাচারের মাধ্যমে সরকার আমাদের সকলের মধ্যে ভয় ধরাতে চাইছেন।’ বৃহস্পতিবার আলোকচিত্রী শহিদুলের মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সুলতানা কামাল।

 

সংবাদ সম্মেলনে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী এবং সংঘর্ষের সময় কর্তব্যরত সাংবাদিকদের উপর হামলার নিরপেক্ষ তদন্তও দাবি করেন সুলতানা কামাল। পুলিশ হেফাজতে থাকা শহিদুলের মুক্তির দাবিতে ২০টি সংগঠনের সমন্বয়ে হিউম্যান রাইটস ফোরাম বাংলাদেশ (এইচআরএফবি) এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

 

সুলতানা কামাল বলেন, ‘শহিদুল আলম আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাত একজন মানুষ, দেশেও তার যথেষ্ট সুনাম আছে। তাকে ধরে নিয়ে পিটুনি দেয়া হচ্ছে। এই চিত্র গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের সঙ্গে মেলে না। মূলত স্বৈরাচারী রাষ্ট্র চেষ্টা করে একজন মানুষকে অত্যাচার করে অন্য সবার মধ্যে ভয় সৃষ্টি করতে। যাতে কেউ মুখ না খোলে, নিজের মত প্রকাশ না করে।’

সুলতানা কামাল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ১৯৪৭ থেকে দেশের প্রত্যেকটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছে। তাদের সরকারের কাছ থেকে এখন ‘কাম্য আচরণ’ পাওয়া যাচ্ছে না। তাদের আচরণ আর স্বৈরশাসনের মধ্যে কোনো তফাৎ করতে পারছি না।’

 

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রেপ্তারকৃত শিক্ষার্থীদের ক্ষমা না করার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের বক্তব্যের সমালোচনা করেন সুলতানা কামাল। তিনি বলেন, ‘আমরা আজ ভীষণভাবে বিচলিত। নাহিদ ভাইয়ের মতো মানুষ এমন কথা বলেছেন। যার সঙ্গে আমরা রাস্তায় হেঁটেছি, ঊনসত্তরে গণআন্দোলন করেছি, মুক্তিযুদ্ধ করেছি। আর তিনিই বললেন, ছাত্রদের ছাড় দেওয়া হবে না। আমরা তাহলে কার কাছে যাবো।’ এই মানবাধিকারকর্মী গ্রেপ্তারকৃত শিক্ষার্থীদের মুক্তি এবং আন্দোলনে সম্পৃক্তদের হয়রানি না করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com