সংবাদ শিরোনাম :
নতুন ব্রিজ থেকে ৪ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক বিক্রেতা গ্রেফতার নতুন ব্রিজ থেকে ৪ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক বিক্রেতা গ্রেফতার চোরচক্রের গডফাদার রিপন ও তার সহযোগিকে সনাক্ত করা হয়েছে চীফ জুডিসিয়াল আদালতের সামন থেকে আরও একটি মোটর সাইকেল চুরি আজমিরীগঞ্জে সিএনজি স্ট্যান্ড দখল নিয়ে দুই দলের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া আজমিরীগঞ্জে গাঁজাসহ টমটম চালক আটক লাখাইয়ে ডাকাতি মামলার আসামি চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার বানিয়াচংয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে পাখি শিকার ও পাচারের লিখিত অভিযোগ অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ল অর্ধশতাধিক ছাত্রী! হবিগঞ্জে স্কুল মাঠে পুকুর খনন নিয়ে ফেসবুকে উত্তাপ, অবস্থান জানাল প্রশাসন লোকাল জার্সিকে অ্যাডিডাসের বলে বিক্রি করার দায়ে ইজি ফ্যাশনকে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা
সত্যিকার মুক্তির জন্য লড়াই করেছিলেন বঙ্গবন্ধু: ইমরান খান

সত্যিকার মুক্তির জন্য লড়াই করেছিলেন বঙ্গবন্ধু: ইমরান খান

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নির্বাচনের দাবিতে লড়াই করছেন ক্ষমতাসীন সরকারের বিরুদ্ধে। আর তার এই লড়াইকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের লড়াইয়ের সঙ্গে তুলনা করেছেন ইমরান খান। আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মুজিবুর রহমান যেভাবে সত্যিকার মুক্তির জন্য লড়াই করেছেন, তিনিও ঠিক সেভাবে লড়াই করছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি। পাকিস্তানি পত্রিকা ডনের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়নির্বাচনের দাবিতে ২৮ অক্টোবর থেকে লংমার্চ পালন করছে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। হাকিকি আজাদি-২ নামক এই লংমার্চের পঞ্চম দিন মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) গুঞ্জরাওয়ালায় সমাবেশে উপস্থিত হয়ে ইমরান খান বলেন, ‘নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগকে ক্ষমতার কর্তৃত্ব দেওয়া হয়নি। এর ফলে পাকিস্তানের পূর্বাংশ তথা পূর্ব পাকিস্তান ‘বাংলাদেশ’ নামে স্বাধীন রাষ্ট্র হয়ে যায়। আওয়ামী লীগ গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচনে জয়ের পরও সাংবিধানিকভাবে দেশ শাসনের অনুমতি না পাওয়ায় ১৯৭১ সালে পাকিস্তান কীভাবে দু’ভাগ হয়ে যায় তা মনে করিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগকে ‘নির্বাচনী ম্যান্ডেট’ দিতে অস্বীকৃতি জানানো হয়েছিল আর সেই কারণে দেশের পূর্বাঞ্চলের অর্ধেক পাকিস্তান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তৎকালীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে বর্তমান পিটিআইয়ের তুলনা করে ইমরান খান আরও বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার দল ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে জিতেছিল। ক্ষমতা হস্তান্তর করার পরিবর্তে একজন চতুর রাজনীতিবিদ আওয়ামী লীগ এবং সেনাবাহিনীকে সংঘর্ষের পথে নামিয়ে দিয়েছিলেন। বর্তমানে নওয়াজ শরিফ ও আসিফ জারদারি একই ভূমিকা পালন করছেন।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com