শেষ বিচারে গণতন্ত্রের বিজয় হয় : দুদু

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে দূরে সরানোর লক্ষ্যে তথাকথিত মিথ্যা মামলায় বিচারের নামে প্রহসন করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু।

তিনি বলেন, ক্ষমতাসীনরা অবৈধ ক্ষমতাকে স্থায়ী করার লক্ষ্যে যত অপকর্ম আছে তা তারা একের পর এক করে চলেছে। কিন্তু ইতিহাস বলে শেষ বিচারে গণতন্ত্রের বিজয় হয়।

বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে কৃষক দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের মহানগরীর এক কর্মী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, খালেদা জিয়া এদেশের সব থেকে জনপ্রিয় নেত্রী। এই জনপ্রিয়তার কারণে সরকার দল নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে ভয় পাচ্ছে। তবে আগামী নির্বাচন নির্দলীয় সরকারের অধীনেই হবে।

বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ঘুষ খাওয়ার কথা ইতোমধ্যে স্বীকার করেছেন। নাহিদ সাহেব স্পষ্ট করে বলেছেন সব মন্ত্রী কম বেশি ঘুষ খায়। তিনি প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সহনীয় পর্যায়ে ঘুষ খেতে বলেছেন। একটা দেশের জন্য এর থেকে আর কি মর্মান্তিক ঘটনা থাকতে পারে।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, বাংলাদেশের সব কিছুর সমাধান হচ্ছে একটি পরিবর্তন। গণতন্ত্রের ,অর্থনৈতিক লুটপাটের এই সংকট থেকে বেরিয়ে আসতে হলে আমাদের একটি পরিবর্তন দরকার। আর সেই পরিবর্তনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া।

এদিকে কর্মী সভায় কৃষক দলের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দুদিনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ২৯ ডিসেম্বর ঢাকায় স্বাধীনতার ঘোষক সাবেক রাষ্ট্রপতি শহীদ জিয়াউর রহমানের মাজারে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও দোয়া। ৩০ ডিসেম্বর ভোরে দলীয় কার্যালয়ে দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন। র্যালী এবং আলোচনা সভা।

মহানগর কৃষক দলের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নাসির হায়দারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কৃষক দলের কেন্দ্রীয় নেতা তকদির হোসেন মো. জসিম, এস কে সাদী, মিজানুর রহমান লিটু, আব্দুল আলিম, মাইনুল ইসলাম প্রমুখ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com