সংবাদ শিরোনাম :
শুল্ক ফাঁকির শতাধিক বিলাসবহুল গাড়ি এখন সিলেটে! দুবাইয়ে চাকরি দেয়ার কথা বলে টাকা আত্মসাত ॥ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা অবশেষে আবর্জনামুক্ত হচ্ছে হবিগঞ্জ শহরে আধুনিক স্টেডিয়ামের পাশ হবিগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে জামায়াত নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা অপরাধ কর্মকাণ্ড রোধে সতর্ক পুলিশ শাহজীবাজার মাজারে প্রশাসনের আদেশ অমান্য করে কাফেলার আয়োজন সংবাদ প্রকাশের পর গার্নিং পার্কে মিনি পতিতালয়ের সন্ধান ডিবির অভিযানে ৫ কলগার্লসহ ৩ খদ্দর আটক কোরেশনগরে হোটেল যুবরাজ থেকে লাশ উদ্ধার ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে আর্জেন্টিনা ছেলের বিয়ের দাওয়াতে বের হয়ে বাড়ি ফেরা হলো না মায়ের
শীত মৌসুমে বেড়েছে জুয়া ॥ বেড়েছে অপরাধ শায়েস্তাগঞ্জের আসরে পুলিশের হানা ॥ ৮ জুয়াড়ি আটক

শীত মৌসুমে বেড়েছে জুয়া ॥ বেড়েছে অপরাধ শায়েস্তাগঞ্জের আসরে পুলিশের হানা ॥ ৮ জুয়াড়ি আটক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে জমজমাট হয়ে উঠেছে জুয়া। এক্ষেত্রে শীত ও কুয়াশাকে কাজে লাগাচ্ছে জুয়াড়িরা। আসরগুলোতে প্রতিরাতেই হচ্ছে লাখ লাখ টাকার জুয়াখেলা। এসব আসরে প্রতিদিন জেলা ও জেলার বাহির থেকে গাড়ির বহর নিয়ে দলে দলে আসে জুয়াড়িরা। অভিযোগ উঠেছে, এসব জুয়ার আসর থেকে কতিপয় অসাধু পুলিশ সদস্য ও জন প্রতিনিধিদের নামে আদায় হচ্ছে মোটা অংকের চাঁদা। এ অবস্থায় বিপথগামী হচ্ছে এলাকার যুবসমাজ। বাড়ছে নানা অপরাধ প্রবণতা। শুধু তাই নয়, জুয়ার আসরে বিক্রি হচ্ছে মদ, গাজা, ফেন্সিডিল, ইয়াবাসহ নানান সর্বনাশা মাদকদ্রব্যও।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হবিগঞ্জ সদর, শায়েস্তাগঞ্জ, চুনারুঘাট, বানিয়াচং, নবীগঞ্জ, বাহুবল ও লাখাইয়ে সবচেয়ে বেশি জুয়ার আসর বসে। এর মধ্যে সদর উপজেলার এড়ালিয়া, মাছুলিয়া, তেঘরিয়া, খোয়াই নদীর বাঁধে, বড় বহুলা ও গুঙ্গিয়ারজুড়ি হাওরে বসে জুয়ার আসর। এসব জুয়ার আসরে নেতৃত্ব দেন এলাকার প্রভাবশালীরা।
গতকাল ২৭ নভেম্বর দুপুরে জেলার পুলিশ সুপার এসএম মুরাদ আলির নির্দেশনায় শায়েস্তাগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। এ সময় সরঞ্জাম ও নগদ টাকাসহ ৮ জুয়াড়িকে আটক করা হয়। এসআই অভিজিৎ ভৌমিক এর নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে আটকরা হল, শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার দাউদনগর চরনুর আহমদ এলাকার নুনু মিয়ার টিন সেড বসত ঘর থেকে জুয়া খেলারত অবস্থায় মৃত মফিজ উল্লার পুত্র নুনু মিয়া (৫২), মৃত ইদ্রিছ আলীর পুত্র মোঃ ইছাক আলী (৩৯), পশ্চিম লেঞ্জাপাড়া গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলীর পুত্র সাগর মিয়া (৪০), দাউদনগর গ্রামের মৃত আনফর উল্লার পুত্র জুবেদ মিয়া (৪০), চুনারুঘাটের বড়কুটা গ্রামের মৃত আনিছ উল্লার পুত্র জাহির মিয়া (৩৮), মৃত এরশাদ মিয়ার পুত্র নবু মিয়া (৪০), মৃত আফিল উদ্দিনের পুত্র ছফু মিয়া (৪০), দাউদনগরের মৃত মধু মিয়ার পুত্র মোঃ সমিজ আলী (৪২)। এ সময় তাদের কাছ থেকে নগদ ৯৫০০ টাকা, ২০৪টি প্লেয়িং কার্ড জব্দ করা হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com