শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় বিভিন্ন জেলায় দূরপাল্লার বাস বন্ধ

শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় বিভিন্ন জেলায় দূরপাল্লার বাস বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক : রোববার ঢাকার বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস চাপা দিলে রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দিয়া ও করিম নামে দুই শিক্ষার্থী নিহত হন। এর পর থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় শিক্ষার্থীরা নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছে।

এই পরিস্থিতিতে কিছু সংগঠন বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

বগুড়া:

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে বগুড়া থেকে ঢাকা ও চট্টগ্রামের পথে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে বাস চালকরা।

বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে জেলা উপজেলা পর্যায়ে বাস চলাচল সচল থাকলেও বগুড়া থেকে ঢাকাগামী বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় তারা।

বগুড়া মটর মালিক গ্রুপের যুগ্ম আহ্বায়ক আমিনুল ইসলাম বলেন, চালকরা বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। তাদের বাস চালানোর জন্য বলা হলেও তারা চালাচ্ছে না।

“তারা বলছে তাদের দাবি আছে। সেই দাবিগুলো সরকার মেনে নিলে বাস চলাচল শুরু হবে।”

এ বিষয়ে বগুড়া জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের নেতা মাহবুবর রহমান মানিক বলেন, বেলা ৪টা থেকে ঢাকা, চট্টগ্রাম রুটের সব বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

“বাস চালকরা ঝুঁকি নিয়ে রাস্তায় চলাচল করতে চাইছে না। শুধু চালকের না, যাত্রীরাও নিরাপদ থাকছে না। এ কারণে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।”

মাদারীপুর:

বিভিন্ন জায়গায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মধ্যে নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে মাদারীপুর থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

মাদারীপুর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি ফাইজুল শরীফ বলেন, “শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে নিরাপত্তার অভাবে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছি। গাড়ি চালালে যেকোনো সময় গাড়ি ও চালকদের ওপর হামলা হতে পারে।”

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছে। এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানান শ্রমিকনেতা ফাইজুল শরীফ।

ময়মনসিংহ:

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে ময়মনসিংহ থেকে ঢাকার পথে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে মালিক সমিতি।

জেলা পরিবহন মটর মালিক সমিতির বাস বিভাগের সম্পাদক বিকাশ সরকার জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঢাকার দিকে কোনো বাস তারা ছাড়েননি।

“রাস্তায় বের হলেই শিক্ষার্থীরা ইচ্ছামত বাস ভাংচুর করছে। মালিকরা লাখ লাখ টাকা ক্ষতির মুখে পড়ছেন। তাই নিরাপত্তার অভাবে সকাল থেকে ঢাকামুখী বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়।”

পরিস্থিতি ভালো থাকলে বিকাল থেকে আবার বাস চলাচল শুরু হতে পারে বলে জানান বিকাশ।

এদিকে হঠাৎ বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা।

শহরের মাসকান্দা বাসস্ট্যান্ডে আসা ঢাকাগামী যাত্রী নুরুল হক বলেন, বাস বন্ধের বিষয়টি তার জানা ছিল না। স্ট্যান্ডে এসে কোনো বাস না পেয়ে তাকে বাসায় ফিরে যেতে হচ্ছে।

সাদিয়া জান্নাত নামে আরেক যাত্রীও একই কথা বলেন।

একটি বাসের চাপায় গত ২৯ জুলাই ঢাকায় দুই কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর থেকে প্রতিদিনই রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ অবরোধ চালিয়ে আসছে ছাত্রছাত্রীরা।

তাদের এই আন্দোলনের কারণে বুধবার সারা দিন রাজধানীর রাজপথ কার্যত অচল হয়ে থাকে।

শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলন ক্রমশ জটিল আকার পেতে থাকায় বুধবার রাতে এক ঘোষণায় বৃহস্পতিবার সারা দেশে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কপিরাইট © 2017 Lokaloy24

 
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com